Beta
সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪

অবসরে ম্যারাডোনা-পেলে-বেলিংহামদের জার্সি, মেসির ভবিষ্যৎ কি?

লিওনেল মেসির বয়স ৩৬ বছর ছাড়িয়ে গেছে। আগামী বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে নিজেই দ্বিধায় তিনি। তবে এই কিংবদন্তি যখনই জাতীয় দল থেকে অবসর নিন, তার জার্সিটা আর কাউকে পরতে দিতে চায় না আর্জেন্টাইন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এএফএ)।

মেসির সঙ্গে তাঁর জার্সিকেও অবসরে পাঠানোর পরিকল্পনার কথা আর্জেন্টিনার একটি দৈনিককে বলেছেন এএফএর প্রধান ক্লদিও তাপিয়া, ‘‘মেসি যখন জাতীয় দল থেকে অবসর নেবে, আমরা তার জার্সি আর কাউকে পরতে দেব না। তাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে এই ১০ আজীবনের জন্য অবসরে থাকবে।’’

এর আগে ১৯৮৬ বিশ্বকাপ জেতানো ডিয়েগো ম্যারাডোনার ১০ নম্বর জার্সিও অবসরে পাঠাতে চেয়েছিল আর্জেন্টিনা। ২০০২ বিশ্বকাপের আগে সেই সময়ের এএফএ প্রধান হুলিও গ্রোন্দনা সেই ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবে ফিফার নিয়মের কারণে সেই সময় তা হয়ে ওঠেনি।

ফিফার টুর্নামেন্ট বা তাদের আয়োজনে যেকোনো ম্যাচে দলগুলোর খেলোয়াড়দের ১ থেকে ২৩ নম্বর জার্সি পরার কথা বলা আছে নিয়মে। করোনার পর দলের আকার বেড়ে হয়েছে ২৬। জার্সি নম্বরের নিয়মটা আছে তবু আগের মতই। তাই মেসির ১০ নম্বর জার্সিকে অবসরে পাঠানো আটকে যেতে পারে আইনের বেড়াজালে।

নিজেদের ইতিহাসের সেরা খেলোয়াড় জর্জ উইয়াহকে সম্মান জানাতে অবশ্য লাইবেরিয়ার জাতীয় দল তাদের ১৪ নম্বর জার্সিকেই অবসরে পাঠিয়েছে। রাজনীতিতে সফল উইয়াহ দায়িত্ব নিয়েছেন লাইবেরিয়ার রাষ্ট্রপতি হিসেবে। মেসির জন্য আর্জেন্টিনার সামনে আদর্শ উদাহরণ এটা।

জাতীয় দলে না হলেও ক্লাবে অবশ্য জার্সি নম্বর অবসরে পাঠানোর নজির আছে অনেক। এই তালিকায় রয়েছেন পেলে (নিউ ইয়র্ক কসমস, জার্সি নম্বর ১০), ডিয়েগো ম্যারাডোনা (নাপোলি, জার্সি নম্বর ১০), পাওলো মালদিনি (এসি মিলান, জার্সি নম্বর ৩), ইয়োহান ক্রুইফ (আয়াক্স আমস্টারডাম, জার্সি নম্বর ১৪), ফ্রাঙ্কো বারেসি (এসি মিলান, জার্সি নম্বর ৬), হাভিয়ের জানেত্তি (ইন্টার মিলান, জার্সি নম্বর ৪), জিয়াচিন্তো ফাচেত্তি (ইন্টার মিলান, জার্সি নম্বর ৩), রোজারিও চেনি (সাও পাওলো, জার্সি নম্বর ০১), রবার্তো ব্যাজিও (ব্রেসিয়া, জার্সি নম্বর ১০), ফেরেঙ্ক পুসকাস (হনভেদ, জার্সি নম্বর ১০), লুইজি রিভা (ক্যালিয়ারি, জার্সি নম্বর ১১),  হেনরিক লারসন (হেলসিংবোর্গস, জার্সি নম্বর ১৭), দারিও সরনা (শাখতার দোনেস্ক, জার্সি নম্বর ৩৩), জিয়ানফ্রাঙ্কো জোলা (চেলসি, জার্সি নম্বর ২৫) ও আলেসান্দ্রো লুকারেল্লি (পারমা, জার্সি নম্বর ৬)।

বরুশিয়া ডর্টমুন্ডে আসার আগে জুড বেলিংহাম খেলতেন বার্মিংহাম সিটিতে। ১৭ বছর বয়সে ক্লাব ছাড়া বেলিংহামের ২২ নম্বর জার্সি অবসরে পাঠিয়ে চমকেই দেয় বার্মিংহাম।

এছাড়া ক্লাবের খেলোয়াড়ের অকাল মৃত্যুতেও তুলে রাখা হয়েছে অনেকের জার্সি নম্বর।

২০০২-০৩ মৌসুমে ফরাসি ক্লাব লিওঁ থেকে ধারে ক্যামেরুনের মিডফিল্ডার মার্ক-ভিভিয়েন ফোকে দলে এনেছিল ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি, পরতে দিয়েছিল ২৩ নম্বর জার্সি। ২০০৩ সালে কনফেডারেশনস কাপের সেমিতে মাঠেই লুটিয়ে প্রাণ হারান তিনি। এরপর ম্যানসিটি ২৩ নম্বর ও লেন্স তুলে রাখে তার পড়া ১৭ নম্বর জার্সি।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist