Beta
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

মিয়ানমারের আরও ৬৩ জনের অনুপ্রবেশ  

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার উলুবনিয়া সীমান্ত দিয়ে বুধবার দুপুর ১২টার দিকে মিয়ানমার থেকে আরও ৬৩ জন বাংলাদেশে এসেছে। ছবি : সকাল সন্ধ্যা

মিয়ানমার থেকে আরও ৬৩ জন কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার উলুবনিয়া সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদর দপ্তরের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরিফুল ইসলাম।

তিনি জানান, মোট ৩২৭ জন পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিজিপি), সেনা সদস্যসহ অন্যরা। তাদের নিরস্ত্রীকরণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সীমান্তের কাছে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে দেশটির সেনাবাহিনীর সঙ্গে বিদ্রোহীদের সংঘাত কিছুটা কমেছে। মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে বুধবার দুপুর পর্যন্ত সীমান্তের কাছাকাছি এলাকায় গোলাগুলির শব্দ কমেছে। বিচ্ছিন্নভাবে কয়েকটি শব্দ শোনা গেলেও বিস্ফোরণের শব্দ অনেকটা বন্ধ রয়েছে বলে উলুবনিয়া সীমান্ত এলাকার জনপ্রতিনিধিরা জানিয়েছেন।

এ বিষয়ে পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সংঘাত মঙ্গলবার মধ্যরাত থেকে বন্ধ বলা যায়। বিচ্ছিন্ন কিছু শব্দ শোনা গেলে গোলাগুলির শব্দ আর নেই।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে উলুবনিয়ার সীমান্ত দিয়ে বিজিপির আরও ৬৩ সদস্য পালিয়ে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হোয়াইক্যং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর আহমদ আনোয়ারি।

তিনি জানান, পালিয়ে আসা ব্যক্তিদের অস্ত্র জমা নিয়ে বিজিবি হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist