Beta
রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪

১৭ বছরের এনদ্রিকের গোলে জয়ে শুরু দোরিভালের ব্রাজিলের

ওয়েম্বলিতে গোলের পর এনদ্রিক। ছবি : এক্স
ওয়েম্বলিতে গোলের পর এনদ্রিক। ছবি : এক্স

এখনও বয়স ১৮ হয়নি। তাই চুক্তি হলেও পালমেইরাস থেকে রিয়াল মাদ্রিদে আসা হচ্ছে না এনদ্রিকের। আগামী বছর রিয়ালে এলে যে গোলের ফুল ফোটাবেন তারই ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন ১৭ বছরের এই বিস্ময় বালক।

ওয়েম্বলির মত ঐতিহ্যবাহী ভেন্যুতে খেলা স্বপ্ন যে কারও। সেখানেই জাতীয় দলের হয়ে তৃতীয় ম্যাচে এনদ্রিক করলেন নিজের প্রথম গোল। ৮০ মিনিটে করা তার একমাত্র গোলেই ইংল্যান্ডকে ১-০ ব্যবধানে হারাল ব্রাজিল। ১৯৬৬ সালের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের হারিয়ে নতুন যাত্রাও শুরু হল নতুন কোচ দোরিভালের।

ওয়েম্বলিতে সবশেষ ২০২২ সালের অক্টোবরে ডেনমার্ক হারিয়েছিল  ইংল্যান্ডকে। ২১ ম্যাচ পর তাদের হারাল ব্রাজিল। ২০০৯ সালের পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে এটাই ব্রাজিলের প্রথম জয়।

৭ বছর পর মুখোমুখি হয়েছিল লাতিন ও ইউরোপিয়ান ফুটবলের দুই পরাশক্তি ব্রাজিল-ইংল্যান্ড। দুই দলই ইনজুরির থাবায় পায়নি সেরা অনেক তারকা। ব্রাজিলে যেমন ছিলেন না কাসেমিরো-আলিসন তেমনি ইংল্যান্ডে হ্যারি কেইন-জর্ডান হেন্ডারসনরা।

 ব্রাজিল এমন স্কোয়াড আনতে বাধ্য হয় যাদের ১১ জনের অভিষেকই হয়নি! ব্রাজিলের শুরুর একাদশে অভিষেক হয় পাঁচ জনের। সেই দল নিয়ে ইংল্যান্ডকে হারানোটা বড় সাফল্য দোরিভালের শিষ্যদের।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে গোলের অনেক সুযোগ তৈরি করেছিল দুই দল। ইংল্যান্ডের বলের দখল ছিল ৫২.৮ শতাংশ, ব্রাজিলের ৪৭.২ শতাংশ। পোস্টে দুই দলের শট সমান ১৪টি করে। তবে ব্রাজিলের লক্ষ্যে ছিল ৫টি, ইংল্যান্ডের ৩টি। গোলরক্ষকরা সেভ করেছেন সমান ৩টি করে।

১২ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারত ব্রাজিল। গোলরক্ষককে একা পেয়েও ভিনিসিয়ুস নিয়েছিলেন দুর্বল শট। সেটা গোলরক্ষককে ফাঁকি দিলেও সহজেই ঠেকান কাইল ওয়াকার। ইনজুরির জন্য কিছুক্ষণ পর মাঠ ছেড়ে যান ওয়াকার।

রিয়াল মাদ্রিদের দুই সতীর্থ ভিনিসিয়ুস-রোদ্রিগোদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে খেলছিলেন জুড বেলিংহাম। তবে গোলের দেখা পাচ্ছিলেন না কেউই। সেই গোলটা আসে ৮০তম মিনিটে বদলী খেলোয়াড় এনদ্রিকের পায়ে।

আন্দ্রেস পাহেইরার অসাধারণ পাস গতি দিয়ে ডিফেন্ডারদের পেছনে ফেলে পোস্টে শট নিয়েছিলেন ভিনিসিয়ুস। সেই শট ঠেকান গোলরক্ষক জর্ডান পিকফোর্ড। তবে ফিরতি বল ফাঁকা জালে পাঠাতে সমস্যা হয়নি ৭১ মিনিটে বদলি হয়ে নামা এনদ্রিকের।

অফসাইডের আবেদন করে রেফারিকে ঘিরে ধরেন ইংলিশ ফুটবলাররা। তবে কেউ অফসাইডে ছিলেন না নিশ্চিত হয়ে ভিএআর বৈধ গোল দেয় এটি। তাতে ইতিহাস গড়েন এনদ্রিক। তার চেয়ে কম বয়সে ওয়েম্বলিতে গোল পাননি আর কেউ।

এনদ্রিক ব্যবধান দ্বিগুণও করতে পারতেন। ইনজুরি টাইমের পঞ্চম মিনিটে গোলরক্ষককে একা পেয়েও বল জালে পাঠাতে পারেননি এই তরুণ। তবু ম্যাচের নায়ক তিনিই।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist