Beta
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

আশুলিয়ায় সাবেক স্ত্রীকে হত্যার পর আত্মহত্যা

আশুলিয়া
আশুলিয়ায় দুই লাশ উদ্ধারের ঘটনা প্রকাশ হলে সেখানে ভিড় করেন স্থানীয়রা। ছবি : সকাল সন্ধ্যা

সাভারের আশুলিয়ায় এক নারী ও এক পুরুষের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক সাদরুজ্জামান জানিয়েছেন, নিহত দুজন সাবেক স্বামী-স্ত্রী। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, সাবেক স্ত্রীকে ছুরিকাঘাত করে হত্যার পর ওই ব্যক্তি আত্মহত্যা করেছেন। দুটি লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

মঙ্গলবার আশুলিয়ার কাঁইচাবাড়ী এলাকার একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন নওগাঁ জেলার বদলগাছি উপজেলার খোকশাবাড়ি গ্রামের মংলা সরদারের মেয়ে মীম আক্তার (২২) ও নাটোরের জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার মকিমপুর গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে নাঈম (২৫)।

মীম আশুলিয়ার ফোরএ ইয়ার্ন ডাইং লিমিটেড নামে একটি পোশাক কারখানায় কাজ করতেন।

তার ভাই খোরশেদ আলম জানান, তিন বছর আগে বাড়ি থেকে পালিয়ে গিয়ে নাঈমকে বিয়ে করেন মীম। এরপর দুবছর সংসারও করেছেন। কিন্তু নাইম মাদকাসক্ত হওয়ায় তাদের মধ্যে ঝগড়াঝাঁটি শুরু হয়। এক পর্যায়ে নাঈমকে তালাক দিয়ে আলাদা থাকতে শুরু করেন তার বোন।

এরপর কাঁইচাবাড়ীতেই আরেকটি মেয়ের সঙ্গে বাসা ভাড়া নিয়ে স্থানীয় একটি পোশাক কারখানায় মীম চাকরি করতেন বলে জানান খোরশেদ।

তিনি বলেন, কিছুদিন আগে মীমকে খুঁজে বের করেন নাঈম। এরপর পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং সব ভুলত্রুটির জন্য ক্ষমা চেয়ে মীমের সঙ্গে আবার সংসার শুরুর আগ্রহের কথা জানায়।

এর কয়েকদিন না যেতেই সকালের বোনের মৃত্যুর খবর পান বলে জানান খোরশেদ।

নিহত মীমের সঙ্গে একই বাসায় থাকতেন আরেক পোশাককর্মী নাতাশা।

তিনি বলেন, “দুপুরে লাঞ্চের বিরতিতে বাসায় ফেরার কিছুক্ষণের মধ্যেই নাঈম আসে। এসেই আমাকে বলে আপনি একটু বাইরে যান, ওর সাথে আমার কথা আছে। আমি আপত্তি করলে নাঈম আমাকে জোর করে রুম থেকে বের করে দেয়। আমার সন্দেহ হলে আবারও রুমে যাই এবং দেখি নাঈমের হাতে ছুরি। তারা দুজনে কথা কাটাকাটি করছে।

“আমাকে দেখে ছুরি নিয়ে আমার দিকে তেড়ে আসে। তখন আমি দৌড়ে নিচে নেমে এসে ভবনের অন্যদের জানাই। কয়েকজন মিলে গিয়ে দেখি ভেতর থেকে দরজা বন্ধ, কোনও সাড়াশব্দ নেই। দরজা ভেঙে ঢুকে দেখি মীম মেঝেতে পড়ে আছে আর নাঈম ফ্যানের সঙ্গে ঝুলছে।”

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক সাদরুজ্জামান জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে মীমকে ধারাল অস্ত্র দিয়ে হত্যার পর তার সাবেক স্বামী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। নিহতের বুকে ও পেটে বেশ কয়েকটি ক্ষত রয়েছে।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন জানিয়ে তিনি বলেন, “মরদেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রতিবেদন পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist