Beta
রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪
Beta
রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪

পুরুষ কাউন্সিলরের ঘুষিতে ফাটল নারী কাউন্সিলরের ঠোঁট

SS-Kushtia purosobha-4-7-24
Picture of আঞ্চলিক প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া

আঞ্চলিক প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়া পৌরসভায় কথা কাটাকাটির জেরে ঘুষি মেরে নারী কাউন্সিলরের ঠোঁট ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আরেক কাউন্সিলর কৌশিক আহম্মেদ বিচ্ছুর বিরুদ্ধে।

আহত ওই নারী কাউন্সিলের নাম মোছাম্মত পারভীন হোসেন। তিনি কুষ্টিয়া পৌরসভার সংরক্ষিত ওয়ার্ড ১৯,২০ ও ২১ এর কাউন্সিলর। আর অভিযুক্ত কৌশিক আহম্মেদ ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টার দিকে পৌরসভায় কাউন্সিলরদের মিলনায়তনে এমন ঘটনা ঘটে। সে সময় অনেক কাউন্সিলর সেখানে উপস্থিত ছিলেন। ঘটনার পর পুরো পৌরসভা জুড়ে সৃষ্টি হয় হুলুস্থুল। পরে থানা থেকে পুলিশের একাধিক দল এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

পারভীন হোসেন বলেন, “নামাজের আগে কাউন্সিলর কৌশিক তখন মসজিদের দিকে যাচ্ছিল। এ সময় আমি পেছন থেকে তাকে বাবা-সোনা বলে ডাক দিই। তিনি এসে বলেন, আমি নাকি তাকে গালি দিয়ে ডাক দিয়েছি। এই বলেই তিনি কিলঘুষি মেরে আমার ঠোঁট ফাটিয়ে দেয়।”

তিনি আরও বলেন, “কাউন্সিলর বিচ্ছু পৌরসভায় একচ্ছত্র আধিপত্য বিস্তারের চেষ্টা করছে। তার দাপটে অন্য কাউন্সিলররা কোণঠাসা হয়ে থাকেন। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।”

অন্যদিকে কৌশিকের দাবি, নারী কাউন্সিলর প্রতিদিন মদ পান করে এখানে আসেন। তিনি বলেন, “তিনি আমাকে বিশ্রী ভাষায় গালি দিয়ে ডাক দেন। আমি এর প্রতিবাদ করলে তিনি চায়ের কাপ ছুড়ে মারেন। সেই কাপ আমার গায়ে লাগলে আমি তাকে ঘুষি মেরেছি।”

মদ পান করে এসে পারভীন হোসেন প্রতিদিন ‘ঝামেলা’ করে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তার এমন মন্তব্যের পর উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। নারী কাউন্সিলরের স্বজনরা উত্তেজিত হয়ে কৌশিককে মারতে যায়। পরে পুলিশ এসে তাকে সরিয়ে নিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী অন্য কাউন্সিলররা জানান, কৌশিক ইচ্ছাকৃত নারী কাউন্সিলর পারভিনকে ঘুষি মেরেছেন। সে অন্যায় করেছে। এ ধরনের ঘটনা কাম্য নয়। তার বিচার হবে।

পুলিশ জানিয়েছে, নারী কাউন্সিলরের ওপর হামলার অভিযোগ তারা পেয়েছে। পৌরসভায় এখন উত্তেজনা নেই। দুই পক্ষকে থানায় ডাকা হয়েছে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত