Beta
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

অনলাইনে ‘উগ্রবাদে’ আহ্বান, এবিটি সদস্য গ্রেপ্তার

এটিইউ
অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের (এবিটি) এক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিট (এটিইউ)।

গ্রেপ্তার ব্যক্তির নাম মো. সাগর আলী ওরফে সালমান বিশ্বাস সাগর (২১)।

এটিইউ জানিয়েছে, সন্ত্রাসবিরোধী আইনে করা মামলার এই আসামী দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন। তার বিরুদ্ধে সাইবার স্পেস ব্যবহার করে জঙ্গিবাদের প্রচার এবং রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে তথাকথিত খিলাফত প্রতিষ্ঠা করতে বিভিন্ন ধরনের কর্মকাণ্ড পরিচালনার অভিযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) এটিইউ সদরদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “সোমবার (২২ জানুয়ারি) রাতে কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর থানার আল্লারদরগা এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাগরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন এবং দুটি সিমকার্ড জব্দ করা হয়েছে।”

সাগর আল্লারদরগা এলাকার নুরুজ্জামান বিশ্বাস রকেট কয়েল ফ্যাক্টরিতে ইলেকট্রিশিয়ান হিসাবে কর্মরত ছিলেন জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি থানায় অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের করা সন্ত্রাস বিরোধী আইনের একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এটিইউ জানিয়েছে, সাগর ও তার সহযোগীরা সাইবার স্পেস ব্যবহার করে সাধারণ মানুষের মধ্যে উগ্রবাদী মতাদর্শ প্রচার ও আতংক সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের আইনশৃংঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতির জন্য নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন। এছাড়া আগ্রহীদের প্রশিক্ষণ ও প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে বিভিন্ন সিকিউরড গ্রুপ খুলে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ করছিলেন। পাশাপাশি উগ্রবাদী বিভিন্ন কন্টেন্ট অনলাইনে পোস্ট করে আগ্রহীদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষাসহ তাদের উগ্রবাদের দিকে আহ্বানও করা হচ্ছিল।

এর আগে গত ২০ সেপ্টেম্বর পাঁচবিবি থানায় করা মামলায় এজাহারভুক্ত অন্য দুই আসামী মো. মুজাহিদুল ইসলাম (১৯) ও সাকির আহমদকে (১৯) গ্রেপ্তার করেছিল এটিইউ।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist