Beta
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

পাকিস্তান দলে আসা-যাওয়ায় বিরক্ত আজম

পাকিস্তানি ক্রিকেটার আজম খান। ছবি: টুইটার

ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে তার ব্যাটে রানের ফোয়ারা। গত বছরের বিপিএলেই পেয়েছিলেন সেঞ্চুরি। তবে পাকিস্তান জাতীয় দলে বলার মতো কোনও পারফরমেন্স নেই আজম খানের। এজন্য পাকিস্তান দলের সিদ্ধান্তের ওপরই আঙুল তুললেন ১১০ কেজি ওজনের এই ক্রিকেটার। জাতীয় দলে আসা-যাওয়া মোটেও পছন্দ নয় তার।

পাকিস্তানের কিংবদন্তি উইকেটকিপার মঈন খানের ছেলে আজম। অবশ্য জাতীয় দলে তিনি ডাক পেয়েছেন নিজের পারফরমেন্স দিয়েই। ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে আলো ছড়িয়ে নির্বাচকদের নজরে পড়েন। যদিও পাকিস্তান দলে জায়গা পাকাপোক্ত করতে পারেননি। ২০২১ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকের পর তিন বছরে খেলেছেন মাত্র সাত ম্যাচ। রান করেছেন মোটে ২৯।

ফলে পরের সিরিজেই বাদ পড়ছেন। এই আসা-যাওয়ার ইতি চান আজম। তার চাওয়া, হয় পুরো সিরিজ খেলানো হোক, না হলে একেবারে তাকে বাদ দেওয়া হোক দল থেকে।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ইন্টারন্যাশনাল লিগ টি-টোয়েন্টিতে ডেসার্ট ভাইপার্সে খেলছেন আজম। ফ্র্যাঞ্চাইজিটির ইউটিউব চ্যানেলে তিনি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন শোয়েব মালিকের কাছে। সেখানেই তিনি পাকিস্তান দল নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন।

আজম বলেছেন, “গত চার বছরে আমি তিনবার (পাকিস্তান) দলে ফিরেছি। কিন্তু কখনোই পুরো সিরিজ খেলার সুযোগ পাইনি। বিষয়টা আমাকে খুব কষ্ট দেয়। আমার কথা হলো, হয় আমাকে পুরো সিরিজে সুযোগ দিয়ে দেখা হোক, নয়তো আমাকে একেবারে বের করে দেওয়া হোক। শুধু শুধু মাঝখানে ঝুলিয়ে রাখার তো কোনও মানে হয় না।”

আন্তর্জাতিক মঞ্চে রান পেলেও ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটে আজমের পারফরমেন্স দুর্দান্ত। পিএসএল ছাড়াও নিয়মিত খেলছেন বিপিএল, আইএলটিটোয়েন্টি ও লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগে। এই লিগগুলোতে রান পেলেও কেন জাতীয় দলে ব্যর্থ হচ্ছেন, এই প্রশ্ন আছে আজমের মনেও। তিনি মনে করেন, আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি এখানে বড় কারণ।

আজম বলেছেন, “আমার কাছে মনে হয় লিগ ক্রিকেটে আমি পুরো সময় খেলার সুযোগ পাই। তারা (ফ্র্যাঞ্চাইজি) জানে আমি পারব, সেকারণেই তারা আমাকে ডাকে। এর অর্থ হলো, তারা (পাকিস্তানে টিম ম্যানেজমেন্ট) আমার মনের মধ্যে ঢুকিয়ে দিচ্ছে যে, আমি পারি না। ঠিক আছে সেটাই যদি হয়, তাহলে আমাকে নিজের রাস্তা খুঁজে নিতে হবে।”

আজমের যুক্তি, “লিগগুলোতে আমি বিদেশি কোচের অধীনে খেলি। আমার খেলা নিয়ে তাদের কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু পাকিস্তান দলে খেলতে গেলে মনে হয় আমার মধ্যে ঘাটতি আছে। যদিও যখন আমি নিজের খেলা দেখি, তখন মনে হয় সব তো ঠিকই আছে। আমি অন্য খেলোয়াড়দের চেয়ে কম কীসে।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist