Beta
সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪

তিন দিনের জুয়েলারি মেলা শুরু ৮ ফেব্রুয়ারি

ঢাকার বসুন্ধরা সিটি কমপ্লেক্সে বৃহস্পতিবার বাজুসের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ছবি : সকাল সন্ধ্যা

‘সোনায় বিনিয়োগ, ভবিষ্যতের সঞ্চয়’— এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে তৃতীয়বারের মতো জুয়েলারি মেলা আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বাজুস)। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ঢাকার ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) তিন দিনব্যাপী বাজুস ফেয়ার-২০২৪ অনুষ্ঠিত হবে।

বৃহস্পতিবার ঢাকার বসুন্ধরা সিটি কমপ্লেক্সে বাজুসের এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

লিখিত বক্তব্যে বাজুসের কোষাধ্যক্ষ ও ফেয়ার অ্যান্ড ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট বিষয়ক বাজুসের স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান উত্তম বণিক বলেন, বাজুস ফেয়ার-২০২৪ দেশীয় জুয়েলারি শিল্পকে সমৃদ্ধশালী করার পাশাপাশি বিশ্ববাজারে একটি নতুন অবস্থান তৈরিতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে। দেশের স্বর্ণ শিল্পীদের হাতে গড়া নিত্যনতুন আধুনিক ডিজাইনের অলঙ্কারের পরিচিতি বাড়বে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বাজুসের মুখপাত্র সাবেক সভাপতি ডা. দিলিপ কুমার রায় বলেন, “বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী জুয়েলারি ব্যবসা নষ্ট হয়ে যাচ্ছিল। আমাদের পুরোনো ঐতিহ্য রক্ষা করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের স্বর্ণনীতি দিয়েছেন। আমরাও আমাদের জুয়েলারি ব্যবসায় এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বাংলাদেশের ৪০ হাজার প্রতিষ্ঠানকে এক সংগঠনের নিচে নিয়ে আসতে পেরেছি।”

তিনি বলেন, “এত বড় সংগঠন হলেও মাত্র ৪১টি প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশগ্রহণ করছে। এর কারণ এই মেলা উন্মুক্ত জায়গায় করা সম্ভব না, নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার থাকতে হয়। আমরা যে জায়গায় এই মেলা আয়োজন করছি সেখানে এর বেশি স্টল দেওয়ার জায়গা নেই।”

তবে মেলায় বাংলাদেশের সব অঞ্চলেরই সোনার নকশা থাকবে বলে জানান তিনি।

সবাইকে সোনায় বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়ে দিলিপ কুমার বলেন, “আপনি গাড়ি, ফ্রিজ, টিভি– যাই কিনেন না কেন, বিক্রি করার সময় দাম অর্ধেক হয়ে যায়। কিন্তু সোনায় বিনিয়োগ করলে তা নিরাপদ। এমন অনেকেই আছেন যারা সোনা কিনেছিলেন ৬-৮ হাজার টাকায়, আর আজকে দাম হয়েছে ১ লাখ ৮ হাজার টাকা।”

মেলার পাশাপাশি একই স্থানে ‘বাজুস জুয়েলারি সামিট-২০২৪’ এর আয়োজন করা হবে জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়,  সামিটে ১০টি সেমিনার হবে। এছাড়াও আগে ঘোষিত বাজুস মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড ২০২৩ বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হবে মেলা থেকে। একই সঙ্গে ‘বাজুস ফেয়ার- ২০২৪’ এ অংশগ্রহণকারী জুয়েলারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে সম্মাননা স্মারক দেওয়া হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বাজুস ফেয়ার ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। বাজুস ফেয়ারে প্রবেশ টিকিটের মূল্য জনপ্রতি ১০০ টাকা। তবে ৫ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের টিকিট লাগবে না। এবারের বাজুস ফেয়ারে ৯টি প্যাভিলিয়ন, ১৭টি মিনি প্যাভিলিয়ন ও ১৫টি স্টলে দেশের ৪১টি জুয়েলারি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বাজুসের মুখপাত্র ও সহসভাপতি মো. রিপনুল হাসান, বাজুসের মুখপাত্র ও সহসভাপতি মাসুদুর রহমান, বাজুসের মুখপাত্র এবং বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডা. দেওয়ান আমিনুল ইসলাম শাহীন, বাজুসের উপদেষ্টা রুহুল আমিন রাসেল প্রমুখ।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist