Beta
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

নাটকীয় ফাইনালে বাংলাদেশ ও ভারত যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন  

যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করার পর বাংলাদেশ দলের মেয়েদের উচ্ছ্বাস। বৃহস্পতিবার কমলাপুর স্টেডিয়ামে। ছবি: বাফুফে।

রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে মাঠে ঢুকলেন প্রধান অতিথি যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী নাজমুল হাসান পাপন। অনূর্ধ্ব-১৯ নারী সাফের ফাইনাল শেষে জয়ী দলের হাতে তুলে দিতে চেয়েছিলেন চ্যাম্পিয়ন ট্রফি। কিন্তু কে জানতো ৯০ মিনিটের ম্যাচ শেষ হবে প্রায় ৫ ঘন্টায়!  

বৃহস্পতিবার নাটকীয় ও বিতর্কিত ফাইনাল শেষে যুগ্ম চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয়েছে বাংলাদেশ ও ভারত দুই দলকে। রাত পৌনে ১১টার সময় পুরস্কার মঞ্চে বাংলাদেশ অধিনায়ক আফঈদা খন্দকার ও ভারতের অধিনায়ক নিতু লিন্ডার হাতে তুলে দেওয়া হলো ফাইনালের ট্রফি।

যদিও এই ট্রফিটা ভারতকে দিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। কিন্তু আরেকটি রেপ্লিকা দেওয়া হবে বাংলাদেশকে।

৯০ মিনিটেই শেষ হতে পারতো ম্যাচটি। ১-০ গোলে পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ হারতে হারতেই আরেকবার সাগরিকা জাদুতে ঘুরে দাঁড়ায়।

যোগ করা সময়ের শেষ মিনিটে সাগরিকার দুর্দান্ত গোলেই সমতায় ফেরে বাংলাদেশ। এর আগে ম্যাচের ৮ মিনিটে শিবানি দেবীর গোলে এগিয়ে যায় ভারত। কিন্তু এরপর  গোলের জন্য মরিয়া বাংলাদেশ গোলপোস্ট খুঁজে পায়নি। অ্যাটাকিং থার্ডে গিয়ে ভেস্তে গেছে আক্রমণগুলো।

আসলে ভারতের মেয়েরা পুরো ম্যাচেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলেছে। সাগরিকাকে পুরো সময় বোতলবন্দী করে রাখেন ভারতীয় ডিফেন্ডাররা। তবে শেষ সময়ে একটি ভাল সুযোগ পেয়েছেন এবং সেটি কাজে লাগিয়েছেন বাংলাদেশের এই স্ট্রাইকার।    

১-১ গোলে সমতায় থাকা ফাইনালের নিষ্পত্তির জন্য শুরু হয় নখ কামড়ানো টাইব্রেকার। প্রথমে ৫টি করে শট নেন দুই দলের ফুটবলাররা। সবগুলো শটেই গোলই হয়েছে, অর্থাৎ ৫-৫। সাডেন ডেথে দুই দল ১১টি করে গোল করলেও ম্যাচে সমতাই থেকে যায়। বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ফুটবলে এমন ঘটনা নেই।

এক পর্যায়ে ‘টাই’ ভাঙ্গতে শ্রীলঙ্কান ম্যাচ কমিশনার ডি সিলভা জয়াসুরিয়া দিলান সাডেন ডেথ থামিয়ে নেন টসের সিদ্ধান্ত। সেটা ছিল ‘ভুল’, বাইলজে সেরকম কিছু নেই। টসে বাংলাদেশ হারে এবং তা মেনে নিতে পারেননি দলের খেলোয়াড়-কর্মকর্তারা। পরে সেই লঙ্কান কমিশনার আবার সাডেন ডেথ চালানোর কথা বললে ভারত বেঁকে বসে। কারণ তারা টস জিতেছে। তাই প্রতিবাদে তারা মাঠ ছেড়ে চলে যায় ড্রেসিং রুমে।

সাফ সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক হেলাল বলেছেন, “এটা পুরোপুরি ম্যাচ কমিশনারের ভুল। তিনি ভুল করে টসের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। পরে দুই দলকে বুঝিয়ে আমরা যুগ্ম চ্যাম্পিয়নশিপে রাজি করিয়েছি।”

সাফ কর্মকর্তার অনুরোধে আড়াই ঘন্টা পর ভারত মাঠে ঢুকে ট্রফি নিতে সম্মত হয়। এরপর চ্যাম্পিয়ন ট্রফি নিয়ে ভারত মাঠ ছাড়ে। বাংলাদেশের মেয়েরা শুধু জাতীয় পতাকা হাতে পুরো স্টেডিয়ামে ভিক্ট্রি ল্যাপ দিয়েছে।    

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist