Beta
রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪
Beta
রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪

বিতর্কে হারের দায় জেট ল্যাগকে দিলেন বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।
Picture of সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

বিতর্কে ট্রাম্পের সঙ্গে নিজের দুর্বল পারফরম্যান্সের জন্য এবার জেট ল্যাগকে দায়ী করলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

আটলান্টায় সিএনএন এর আয়োজিত ২৭ জুনের বিতর্কে অংশগ্রহণের আগে ৮১ বছর বয়সী বাইডেন বিদেশ সফর শেষে দেশে ফেরেন। আর এজন্যই বিতর্কে ভালো করতে পারেননি বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন বাইডেন।

বুধবার ভার্জিনিয়াতে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমার স্টাফদের কথা আমি শুনিনি। আমি স্টেজের উপর প্রায় ঘুমিয়েই পড়েছিলাম।”

বিবিসি জানিয়েছে, ২৭ জুনের বিতর্কের আগে বাইডেন ১৫ জুন শেষবারের মতো বিদেশ সফর সেরে এসেছিলেন।

নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বাইডেন কেমন করবেন, এনিয়ে ডেমোক্রেট শিবিরে ক্রমশ সংশয় বাড়ছে। মূলত এই সংশয় কমানোর চেষ্টা হিসেবেই বাইডেন ভ্রমণজনিত শারিরীক দুর্বলতার কথা বলে পরিস্থিতি হালকা করার চেষ্টা করছেন।

ডেমোক্রেটদের একাংশতো বাইডেনের মানসিক ও শারিরীক সক্ষমতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। এদের মধ্যে একজন টেক্সাসের কংগ্রেস সদস্য লয়েড ডগেট।

বুধবার এক বিবৃতিতে ডগেট বলেন, “আমি আশাবাদী যে তিনি (বাইডেন) নিজেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ার মতো বেদনাদায়ক ও কঠিন সিদ্ধান্ত নেবেন।”

সাংবাদিকদের সামনে বাইডেন নিজের বাজে পারফরম্যান্সের জন্য ক্ষমা চেয়ে বলেন, পুনর্নির্বাচনে তার জয়লাভ করা গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

গত মাসে বাইডেন দুবার ইউরোপ সফর করেন। ১৫ জুন ইতালি থেকে ফিরেই তিনি সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে নির্বাচনী তহবিল সংগ্রহের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেন। সেদিনই তিনি আবার ওয়াশিংটন ডিসিতে ফিরে যান।

এর আগে অবশ্য বিতর্কে তার দুর্বল পারফরম্যান্সের জন্য ঠাণ্ডা-কাশিকে দায়ি করেছিল হোয়াইট হাউস। বাইডেনের মুখপাত্র তখন জানিয়েছিলেন, বিতর্কের আগে ঠাণ্ডার ওষুধ খাওয়া বন্ধ করেছিলেন প্রেসিডেন্ট।

বাইডেন কিন্তু এরই মধ্যে প্রেসিডেন্টের অবকাশ যাপন কেন্দ্র ক্যাম্প ডেভিডে তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে ছয়দিন কাটিয়েছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের এক ঘনিষ্ঠজনের উদ্ধৃতি দিয়ে নিউ ইয়র্ক টাইমস জানিয়েছে, প্রতিদিন বাইডেনের সকাল ১১টায় শুরু হয়। তিনি দুপুরে বিশ্রাম নেওয়ার জন্যও সময় পান।

মিডিয়াটি আরও জানায়, ভ্রমণ করে বাইডেন অনেক ক্লান্ত ছিলেন। বিতর্কের আগে তাই তিনি ডেলাওয়ারে নিজের বাড়িতে বিশ্রামও নিয়েছিলেন। এজন্য বিতর্ক দুদিন পিছিয়ে দেওয়াও হয়েছিল।

এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বাইডেনের বয়স সবচেয়ে বড় ইস্যু। একাধিক জরিপে ভোটাররা জানিয়েছে যে, প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব পালনের জন্য তিনি অনেক বয়স্ক ব্যক্তি।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত