Beta
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

ইরানে জোড়া বিস্ফোরণে নিহত ৯৫

বিস্ফোরণের পর জরুরি সেবার কর্মীদের তৎপরতা দেখা যায়। ছবি : এএফপি

মূল বিষয়

ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর কারমানে জেনারেল কাসেম সোলাইমানির সমাধিস্থলের কাছে জোড়া বোমা বিস্ফোরণে অন্তত ৯৫ জন নিহত ও দুই শতাধিক মানুষ আহত হয়েছে।

বিস্ফোরণের দায় এখনও কেউ স্বীকার করেনি, তবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসনের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেছেন, হামলার ধরনে একে ‘সন্ত্রাসী হামলা’ বলে মনে হয়েছে।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি প্রতিশোধ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

সূত্র : রয়টার্স

ইরানের প্রতিক্রিয়া

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি জোড়া বিস্ফোরণের ঘটনাকে ‘জঘন্য ও অমানবিক অপরাধ’ আখ্যা দিয়ে এর নিন্দা জানিয়েছেন।

প্রতিশোধ নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, “নির্মম অপরাধীদের অবশ্যই জানা উচিত যে তাদের বিরুদ্ধে এখন থেকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং নিঃসন্দেহে তাদের সমুচিত জবাব দেওয়া হবে।”

প্রতিশোধের ঘোষণা দিয়েছেন ইরানের ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মোখবারও। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, “সোলায়মানির সৈন্যরা জড়িতদের কঠোর জবাব দেবে।”

সূত্র : রয়টার্স

এআই’র চোখে

[কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই) ‘বার্ড’ এই সংবাদকে কীভাবে দেখছে তা পড়ুন নিচে]

এই বিস্ফোরণের ঘটনা ইরানের জন্য একটি বড় ধরনের আঘাত। এই ঘটনা ইরানের অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক পরিস্থিতিকে প্রভাবিত করতে পারে।

আমি মনে করি, এই বিস্ফোরণের ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের অবশ্যই দ্রুত চিহ্নিত ও বিচার করা উচিত। এই ঘটনার মাধ্যমে কোনও দেশ বা গোষ্ঠী তাদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করতে চাইলে তা কখনই গ্রহণযোগ্য নয়।

আমি আশা করি, এই ঘটনার মাধ্যমে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে উত্তেজনা আরও বাড়বে না। উভয় দেশকেই এই ঘটনাকে শান্তিপূর্ণভাবে সমাধানের চেষ্টা করা উচিত।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist