Beta
শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪
Beta
শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪

নাটকীয় ম্যাচে কুমিল্লার নায়ক ফোর্ড

শেষ ওভারে ৪ বলে ১৩ রান নিয়ে কুমিল্লাকে জয় এনে দিলেন ফোর্ড। ছবি : ফরচুন বরিশাল।
শেষ ওভারে ৪ বলে ১৩ রান নিয়ে কুমিল্লাকে জয় এনে দিলেন ফোর্ড। ছবি : ফরচুন বরিশাল।
Picture of ক্রীড়া প্রতিবেদক

ক্রীড়া প্রতিবেদক

এমন উত্তেজনার ম্যাচ খুব কমই দেখা যায় বিপিএলে। পেন্ডুলামের মতো দুলতে থাকা ফরচুন বরিশাল ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের লড়াইটা ছিল দারুণ উপভোগ্য।

শেষ ওভারে কুমিল্লার উইন্ডিজ অলরাউন্ডার ম্যাথু ফোর্ডের ৪ বলে ১৩ রানের ক্যামিওতে শেষের নাটকে ৪ উইকেটে জিতেছে কুমিল্লা। এক বল হাতে রেখে বরিশালের দেওয়া ১৬২ রানের লক্ষ্য টপকেছে তারা। 

ম্যাচে বরিশালের ভুল ছিল একাধিক। তাদের বোলিং ইনিংসের ১৮ ও ১৯তম ওভার দুটো হল যথাক্রমে ৭ ও ৮ বলের। বাড়তি বলগুলো কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের রান তাড়ায় সুবিধা করে দিয়েছে। এর আগে বরিশালের প্রিতম কুমারের একাধিক ক্যাচ মিসও ম্যাচটি কুমিল্লার পক্ষে এনে দিয়েছে। আর ১৭তম ওভারে জাকের আলির টানা দুই ছক্কাও দলটির জয়ের সমীকরণ সহজ করে দেয়।

১৭তম ওভারের তৃতীয় বলে ইমরুল আউট হন। বরিশাল বেশ ভালো ভাবেই ম্যাচে ফেরে। মাত্র উইকেটে আসা খুশদিল শাহ এক রান নিয়ে প্রান্ত বদল করেন। স্ট্রাইকে গিয়েই টানা দুটি ছক্কা মারেন জাকের। তাতে ৪৫ রানের প্রায়োজনীয়তা এক ঝাটকায় ৩৩ এ নেমে আসে।

পরের ওভারের প্রথম বলে খুশদিল মোহাম্মদ ইমরানকে বাউন্ডারী মেরে সমীকরণ আরও সহজ করেন। তবে বরিশাল বোলাররা বাউন্ডারি আটকে রাখলে ম্যাচ গড়ায় শেষ ওভারে। সেখানে প্রথম বলে খুশদিলকে রান আউট করেন মুশফিক। ওই সময় মনে হচ্ছিল বরিশাল জিতেই যাবে। কিন্তু উইন্ডিজ ব্যাটার ম্যাথু ফোর্ড চার বলে একটি ছক্কা ও চার সহ ১৩ রান নিয়ে জয় এনে দিয়েছেন কুমিল্লাকে।

এর আগে ইমরুল কায়েসের চেষ্টায় পুরো ইনিংসে লড়াই করেছে কুমিল্লা। দলটির সাবেক অধিনায়ক ৪১ বলে ৪ চার ও ৩ ছক্কায় করেছেন ৫২ রান। অপর প্রান্তে উইকেট হারালেও মিরপুরের কঠিন উইকেটে মাথা ঠান্ডা রেখে ব্যাট করছিলেন ইমরুল।

তবে দলীয় ১১৬ রানে তার আউটের পর ম্যাচ কঠিন হয়ে যায় কুমিল্লার জন্য। তবে জাকের-খুশদিল ও ফোর্ড কুমিল্লার প্রথম জয় নিশ্চিত করেন।

তামিমকে টপকে শীর্ষে মুশফিক

বিপিএল ক্যারিয়ারে ৩ হাজার রানের মাইলফলক সোমবার ছুঁয়েছেন তামিম ইকবাল। ওইদিন ৯১ রান করলে মুশফিকুর রহিমও একই উচ্চতায় উঠতেন। এই কীর্তি গড়তে অবশ্য একদিনের বেশি অপেক্ষা করেননি তিনি।

মঙ্গলবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে ৬২ রান করার পথে বিপিএলে দ্বিতীয় ব্যাটার হিসেবে ৩ হাজার রানের কোটা ছুঁয়েছেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটার। সঙ্গে পেছনে ফেলেছেন তামিমকে।

কুমিল্লার বিপক্ষে ম্যাচে ৩ হাজার রান স্পর্শ করতে ২৪ রান দরকার ছিল মুশফিকের। দারুণ ছন্দে থাকা এই ব্যাটার মাইলফলক গড়ে তুলে নিয়েছেন টানা দ্বিতীয় ফিফটি। তার ফিফটিতেও বড় সংগ্রহ গড়তে পারেনি ফরচুন বরিশাল। ৯ উইকেটে ১৬১ রানে থেমেছে দলটি।

বিপিএলে ৩ হাজার ক্যারিয়ার রানের তালিকায় এখন ১১৪ ম্যাচে ৩ হাজার ৩৪ রান নিয়ে এক নম্বরে মুশফিক। একদিন আগেই তামিম শীর্ষে ছিলেন। মঙ্গলবার মাত্র ১৯ রান করায় তামিমের রান দাঁড়ায় ৩ হাজার ২৪। মুশফিক ৬২ করে তামিমকে টপকেছেন।

বরিশালের ইনিংসে পাঁচে নেমে ৪৪ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ২০ তম ফিফটিতে ৬২ রান বাংলাদেশ উইকেটরক্ষক ব্যাটারের।  চতুর্থ উইকেটে ৩১ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় ৪২ রান করা সৌম্য সরকারকে নিয়ে ৬৬ রানের জুটি গড়েন মুশফিক। এ জুটিতেই বরিশাল দেড়শ ছাড়ানো স্কোর পায়।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

ফরচুন বরিশাল : ২০ ওভারে ১৬১/৯ (মুশফিকুর ৬২, সৌম্য ৪২, তামিম ১৯; মোস্তফিজ ৩/৩২, ফোর্ড ২/৩৩, চেজ ২/২৫)।

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স : ১৯.৫ ওভারে ১৬২/৬ (ইমরুল ৫২ , রিজওয়ান ১৮, লিটন ১৩, জাকের ২৩*, খুশদিল ১৪, ফোর্ড ১৩*, ভেল্লালাগে ৩/২৬, খালেদ ১/৩২)।

ফল : কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ৪ উইকেটে জয়ী । ম্যাচ সেরা : ম্যাথু ফোর্ড।    

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত