Beta
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

পঞ্চম হারে চরম হতাশা তাসকিনদের

দিনশেষে হতাশায় মিলিয়ে গেছে তাসকিনদের এই উল্লাস। ছবি : সংগৃহিত।

প্রথম ১০ ওভারে ৮০’র ওপরে রান। দুর্দান্ত ঢাকার তাসকিন আহমেদসহ পুরো দল ভেবেছিল বুধবার সিলেট স্ট্রাইকার্সকে তারা হারাতে পারবে। কিন্তু দিন শেষে তারাই বিপরীত প্রান্তে। মাত্র ১২৫ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে লড়াইটাও করতে পারেনি। সিলেট অনায়াসে এক ওভার হাতে রেখে ৫ উইকেটের জয় তুলে নেয়।

টানা পঞ্চম ম্যাচ হেরে চরম হতাশ ঢাকা দল। প্রতি ম্যাচেই ব্যাটিং ব্যর্থতায় হারছে তারা। বুধবার ১০ ওভারে ১ উইকেটে ৮২ রান করা ঢাকা ইনিংস শেষ করেছে পরের ১০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ৪২ রান যোগ করে। তাসকিন বলেছেন ম্যাচটা সেখানেই হেরে গেছেন।

‘‘আমরা যখন ১০ ওভারে ৮০ রান দেখি তখন ভেবেছিলাম আজকে হয়ত জিততে পারব। কিন্তু এমন অবস্থা হলো যে শেষ ১০ ওভারে মাত্র ৪০ (৪২) এর মতো রান এসেছে। টি-টোয়েন্টিতে আসলে ১২৫ রান নিয়ে কখনই জেতা যায় না। আমরা প্রতি ম্যাচেই ব্যাটিং ব্যর্থতায় হারছি। এটা খুবই হতাশাজনক।”

পয়েন্ট তালিকার তলানির দুই দলের লড়াইয়ে জিতেছে সিলেট। আসরে ৮ ম্যাচ থেকে দ্বিতীয় জয় পেল দলটি। রান তাড়ায় নেমে বিপদে পড়েছিল সিলেটও। দুই ওপেনারকে হারাতে হয় ১৭ রানে। একপ্রান্ত আগলে নাজমুল হোসেন শান্ত ২৫ বলে খেলেছেন আত্মবিশ্বাস ফেরানো ৩৩ রানের ইনিংস।

সাকিব আল হাসান, লিটন দাসের পর দেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে রানে ফিরলেন জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ এই ব্যাটার। স্বস্তিটা তাই সিলেট দলের জন্যও। মিডলঅর্ডারে বেনি হাওয়েল ও রায়ান বার্ল মিলে সিলেটকে দিন শেষে আরও স্বস্তির উপলক্ষ্য এনে দেয়। হাওয়েল ৩০ ও বার্ল ২৯ রানে অপরাজিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist