Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

বিপিএলের স্পন্সর নেই তাই জার্সির অপেক্ষা

বিপিএলের ২০২৩ আসর শুরুই হয়েছিল বিতর্কে। শুরুতে ছিল জার্সি বিতর্ক, পরে এডিআরএস নিয়ে গোলযোগ। প্রযুক্তি ব্যবহার করেও সৌম্য সরকারকে আউট-পরে নটআউট দেয়া হয়। এসব বিতর্ক এবার কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে বিসিবি।

তবুও অপূর্ণতা থাকছেই। বিপিএল শুরুর চারদিন আগ পর্যন্তও ঘোষিত হয়নি টাইটেল স্পন্সরের নাম। তাই তৈরি করা যাচ্ছে না বিপিএল ২০২৪ এর টাইটেল স্পন্সর সম্বলিত অফিসিয়াল লোগো। ফলে দলগুলোও ওই লোগো সম্বলিত ম্যাচ জার্সি বানাতে পারছে না। টাইটেল স্পন্সর না পাওয়ার দায় অবশ্য বিসিবির নয় তাদের সঙ্গে স্পন্সর খোঁজার চুক্তি করা প্রতিষ্ঠান মাত্রা কনসোর্টিয়ামের।

এদিকে সোমবার সন্ধ্যায় প্রথম ম্যাচের সময় ঘোষণা করেছে বিসিবি। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে নতুন দল দুরন্ত ঢাকা ১৯ জানুয়ারি শুক্রবার ২টা ৩০ মিনিটে উদ্বোধনী ম্যাচে মুখোমুখি হবে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে লড়বে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট স্ট্রাইকার্স।

টুর্নামেন্টের মাত্র চারদিন বাকি থাকলেও দলগুলো ম্যাচ জার্সি হাতে পায়নি। তবে গতবারের চেয়ে এবার জার্সি ইস্যুতে উন্নতি আছে। ম্যাচ জার্সি না হলেও সব দল অনুশীলন জার্সি পেয়েছে। গতবার অনুশীলনে কিছু দলের সব ক্রিকেটারদের গায়ে একই জার্সি ছিল না।

বিসিবির সঙ্গে সিরিজের টাইটেল স্পন্সরশিপ চুক্তি ছিল মাত্রা কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে। দেশীয় এই প্রতিষ্ঠান ২০২১ সালে দুই বছরের চুক্তি করে। এই সময়ে সকল হোম সিরিজের স্পন্সরশিপ বিক্রির স্বত্ব তাদের ছিল। ২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে সেই চুক্তি শেষ হয়।

ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর জাতীয় দলের জন্য নতুন স্পন্সর পায়নি বিসিবি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হোমে টেস্ট সিরিজ এবং অ্যাওয়েতে সাদা বলের সিরিজ স্পন্সর ছাড়া খেলতে হয়েছিল।

বিপিএলের টাইটেল স্পন্সরের জন্য মাত্র কনসোর্টিয়ামের সঙ্গেই চুক্তি করেছে বিসিবি। সে অনুযায়ী বিসিবি তাদের অর্থও পেয়ে গেছে। এবার মাত্রার স্পন্সর এনে দেওয়ার দায়িত্ব। সোমবার পর্যন্ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিপিএলের টাইটেল স্পন্সরশিপ ইস্যুতে আলোচনা করেছে মাত্রা।

আলোচনা বেশ ফলপ্রসুই হয়েছে। মাত্রা কনসোর্টিয়ামের শীর্ষকর্তা সানাউল আরেফিন সকাল সন্ধ্যাকে বলেন, ‘‘টাইটেল স্পন্সর ঠিক হয়েছে। আমরা আগামীকাল (মঙ্গলবার) ই-মেইলে ঘোষণা করবো।’’

টাইটেল স্পন্সর হতে কতগুলো প্রতিষ্ঠান আগ্রহ প্রকাশ করেছে এমন প্রশ্ন করা হলে নির্দিষ্ট সংখ্যা বলেননি আরেফিন, ‘‘আসলে আবেদন করেছে অনেকেই। সবার সঙ্গে আর্থিক ব্যাপারটি নিয়েই আলোচনার বড় অংশ থাকে। সেখানে আমাদের অপেক্ষা করতে হয়েছে। আর নির্বাচনের ঠিক পরপরই তো, এজন্য টাইটেল স্পন্সর পেতে একটু সময় লাগছে।’’

মঙ্গলবার টাইটেল স্পন্সর ঘোষিত হলে একই সঙ্গে সহ-স্পন্সরদের নামও ঘোষণা করা হবে বলে জানান আরেফিন। পরে ১৯ জানুয়ারির আগেই দলগুলো ম্যাচ জার্সি প্রস্তুত করে ফেলবে বলে জানা গেছে বেশ কয়েকটি দলের মিডিয়া ম্যানেজারের কাছে। নতুন জার্সিতে দলের আলাদা স্পন্সরের লোগোও বসবে।

থাকছে পূর্ণ ডিআরএস-উন্নত ভিডিও প্রযুক্তি

২০২৩ বিপিএলে অ্যাডিশনাল ডিসিশন রিভিউ সিস্টেমে (এডিআরএস) খুব বিতর্ক হয়েছিল। এবার পূর্ণ ডিআরএস রাখছে বিসিবি। এছাড়া ঢাকা-চট্টগ্রাম-সিলেট তিন ভেন্যুতেই ৩৬-৩৮টি ক্যামেরায় ফোরকে ভিউ রাখা হচ্ছে। এতে সম্প্রচারের মান আগের আসরগুলোর চেয়ে ভালো হবে।

উন্নত প্রযুক্তির পাশাপাশি ধারাভাষ্যেও তারকাদের আনার চেষ্টা করছে সম্প্রচারস্বত্ব পাওয়া প্রতিষ্ঠান রিয়্যাল ইম্পেক্ট। দেশি আতাহার আলি, শামীম আশরাফ চৌধুরী, সমন্বয় ঘোষদের পাশাপাশি পূর্ণ টুর্নামেন্টে ধারাভাষ্য দিতে আসবেন কার্টলি অ্যামব্রোস, এইচডি আকারম্যান ও আমির সোহেল। উইন্ডিজ পেস বোলিং কিংবদন্তি অ্যামব্রোস গতবারও পুরো সময় ছিলেন। খন্ডকালীন ধারাভাষ্য দিতে আসবেন রাসেল আরনল্ড, আলোচনায় আছেন ওয়াসিম আকরামও।

গতবার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান না করে ফাইনালের আগে কনসার্টের আয়োজন করেছিল বিসিবি। এবারও একই পথে হাটবে বোর্ড। ১৯ জানুয়ারি উদ্বোধনী ম্যাচের আগে দেশীয় ব্যান্ড দলকে দিয়ে ছোট কনসার্ট হতে পারে। দুই ম্যাচের বিরতিতে এমন কনসার্ট টুর্নামেন্ট জুড়েই রাখার কথা ভাবছে বিসিবি।

ফাইনালের আগে কোন জনপ্রিয় ব্যান্ড দলকে আনা হবে। গতবার ফাইনালের আগের কনসার্টে গান গেয়েছিলেন জেমস।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist