Beta
রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪

ঘরে নারীর গলাকাটা লাশ, পাশে রক্তাক্ত দা

কক্সবাজারে প্রতিবেশীর বাড়িতে খুনের খবর শুনে জড়ো হন স্থানীয়রা।
কক্সবাজারে প্রতিবেশীর বাড়িতে খুনের খবর শুনে জড়ো হন স্থানীয়রা।

নিজ ঘরের বিছানায় পড়ে ছিল নারীর গলাকাটা লাশ; ঠিক তার পাশে মেঝেতে রক্তাক্ত দা।

কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়াস্থ চেয়ারম্যান ঘাটা এলাকায় বুধবার ভোররাতে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে রাত ৩টায় লাশটি উদ্ধার করে। নিহত নারীর স্বামী, দারোয়ানসহ চারজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

নিহত নারী রিনা আক্তার (৪০) কক্সবাজার শহরের দক্ষিণ রুমালিয়ারছড়াস্থ চেয়ারম্যান ঘাটা এলাকার আবু নাছেরের স্ত্রী।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার পরিদর্শক মো. রকিবুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে তারা গিয়ে বিছানায় গলাকাটা অবস্থায় রিনার লাশ পান। পাশ থেকে উদ্ধার করা হয় একটি রক্তাক্ত দা।

স্থানীয় বাসিন্দা নুর মোহাম্মদ বলেন, তারা খবর শুনে গিয়ে আবু নাছেরকে ঘরেই দেখতে পান। রিনার লাশ তখন পড়েছিল, গলায় ছিল ওড়না, মুখ ছিল রক্তাক্ত।

নুরুল হক চকোরি নামে আরেকজন বলেন, “আবু নাছের রাতে মসজিদে নামাজ পড়ে বাসায় এসে দেখতে পান দরজা খোলা, আর বিছানায় রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে তার স্ত্রীর লাশ। ঘরের আলমারি ও লকার সবগুলো ভাঙা ছিল।”

সৌরভ নামে স্থানীয় একজন বলেন, “সম্ভবত কোনও দুর্বৃত্তের দল কৌশলে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।”

তবে পুলিশ কর্মকর্তা রকিবুজ্জামান বলেন, “আলমারি ও লকার ভাঙা ছিল না এবং স্বর্ণালঙ্কার বা নগদ টাকা লুট করা হয়েছে, এমন কিছু পাওয়া যায়নি।

“ঘটনার ব্যাপারে বেশ কয়েকজন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তবে আরও অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদের চারজনকে থানায় আনা হয়েছে।”

ঘটনার পর আলামত সংগ্রহ করতে খবর দেওয়া হয় সিআইডির ক্রাইম সিন ইউনিটকে। একই সঙ্গে ঘটনার তদন্ত আসে পিবিআই ও র‌্যাবের টিমও। তারাও আলামত সংগ্রহের পাশাপাশি তথ্য সংগ্রহ করে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মিজানুর রহমান বলেন, “এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে পুলিশ কাজ করছে। সিআইডির টিম এসেছে, তারা আলামত সংগ্রহ করছে। পরবর্তী তদন্ত সাপেক্ষে হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচন করা হবে।”

রামুতে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

রামুর কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের বদুপাড়া গ্রামে ছুরিকাঘাতে নাজেম মওলা সাহেদ ছায়া নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার রাত পৌনে ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। ছায়া কচ্ছপিয়ার রূপনগর গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে।

গর্জনিয়া পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত পরিদর্শক মো. সাইফুল আলম সাংবাদিকদের জানান, মদপান করে স্থানীয় ২ যুবক একটি গাড়ির চালককে বকাবকি করছিল। এমন সময় ছায়া এসে প্রতিবাদ করায় তাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান দেলোয়ার ও ওসমান নামের দুই যুবক। পরে স্থানীয়রা ছায়াকে উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে সে মারা যায়।

ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে বলে জানায় পুলিশ।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist