Beta
শনিবার, ২ মার্চ, ২০২৪

ডলার সংকটে ক্রিকেট লিগে থাকছে না বিদেশি

ডলারের দাম চড়া। আর্থিক মন্দার এই সময়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে (ডিপিএল) নতুন সিদ্ধান্ত। এবারের মৌসুমের ঢাকা লিগে থাকছে না কোনও বিদেশি খেলোয়াড়। গত মৌসুমেই নীতিগতভাবে সিদ্ধান্তটা নেওয়া হয়েছিল। মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ক্রিকেট কমিটি অব ঢাকা মেট্রোপলিসের (সিসিডিএম) সভা শেষে এসেছে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা।

বিপিএল চালুর আগে ঢাকা লিগে চার বিদেশি ক্রিকেটার পর্যন্ত খেলেছেন। একসময় সেটি কমিয়ে দুইজনে আনা হয়। গত কয়েক বছরে নেমে আসে একজনে। আর এবার, ৯ মার্চ থেকে শুরু হতে যাওয়া নতুন মৌসুমে একজন বিদেশিও থাকছেন না।

এ ব্যাপারে সকাল সন্ধ্যাকে সিসিডিএম সদস্য সচিব আলি হোসেন জানান, “এই সিদ্ধান্তটা আসলে গতবারই নেওয়া হয়েছে। গতবার বিদেশি ক্রিকেটারদের এনে বেশ ভুগতে হয়েছিল ক্লাবগুলোকে। তাই তারা সবাই একযোগে সিদ্ধান্ত নেয় যে এবারের জন্য যেন বিদেশি ক্রিকেটার কোটা শিথিল করা হয়।”

সঙ্গে যোগ করেন, “মূলত আর্থিক মন্দা ও ডলার সংকট বা রেট বেড়ে যাওয়ার জন্য ক্লাবগুলো বিদেশি ক্রিকেটার আনতে চাইছে না। পরিস্থিতি ঠিক হলে সামনের বার থেকে আবার এই সুবিধা থাকবে।”

নিকট অতীতে ডিপিএলে বড় ক্রিকেটার হিসেবে খেলেছেন ভারতের টেস্ট জার্সি গায়ে তোলা হানুমা বিহারি। এই ব্যাটার খেলেছিলেন আবাহনীর হয়ে। সবসময় বড় ক্রিকেটার আনার দিকে নজর দেওয়া এই ক্লাবটির ম্যানেজার আবদুল্লাহ আল মামুন সকাল সন্ধ্যাকে বলেছেন, “কোনও জাতীয় দলে খেলা ক্রিকেটার হলে ম্যাচপ্রতি ৫-৬ হাজার ডলার দিতে হয়। আমরা হানুমা বিহারিকে ওই টাকা দিয়ে এনেছিলাম। ডলারের রেট রেড়ে যাওয়ায় গতবারই আমাদের জন্য কঠিন হয়ে পড়েছিল। এবার তাই চাচ্ছিলাম দেশিরাই খেলুক।”

টুর্নামেন্টের জন্য প্রতি দলকে ১০ লাখ টাকা করে দিয়ে থাকে বিসিবি। তবে নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী কয়েক কোটি টাকাও খরচ করে কোনও কোনও ক্লাব। যদিও এবার বেশি খরচ করা সব ক্লাবের জন্য কঠিন হয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন আলি হোসেন।

করোনা মহামারীতে ২০২১ সালে ঢাকা লিগ আয়োজিত হয়েছিল টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সেবার কোনও বিদেশি ক্রিকেটার ছিল না। ২০২৪ সালে এসে আবার বিদেশি ছাড়া ঢাকা লিগ।

এবারের বিপিএলের দলবদল হবে ২৮ ও ২৯ ফেব্রুয়ারি। ঘরোয়া ক্রিকেটারদের নিয়ে একাদশ সাজাবে দলগুলো। এখানে দেশি ক্রিকেটারদের জন্য রয়েছে সুখবর। গতবারের ম্যাচসেরার পুরস্কারের টাকা ১০ হাজার থেকে ১৫ হাজার করা হয়েছে।

এছাড়া টুর্নামেন্টসেরা ক্রিকেটার, ব্যাটার ও বোলার প্রতি পুরস্কারে ২ লাখ টাকা বাড়িয়ে করা হয়েছে আড়াই লাখ টাকা। তবে আগের মতোই চ্যাম্পিয়ন দল ১২ লাখ ও রানার্স-আপের প্রাইজমানি রাখা হয়েছে ১০ লাখ টাকা।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist