Beta
রবিবার, ৩ মার্চ, ২০২৪

সোনার বারসহ বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আটক

চারটি সোনার বারসহ চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরের এক স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে আটক করা হয়েছে। তার কাছ থেকে উদ্ধার করা সোনার বারগুলোর ওজন ৪৬৪ গ্রাম।

আটক হওয়া ওই স্বাস্থ্য কর্মকর্তার নাম ডা. জেড এম শরীফ। কাস্টমস এবং শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা তাকে আটকের তথ্য নিশ্চিত করেন। তারা জানান, সোমবার সকালে শারজাহ থেকে আসা এয়ার এরাবিয়ার একটি ফ্লাইটের যাত্রীর কাছ থেকে সোনার বারগুলোর প্যাকেট নেওয়ার সময় আটক হন ডা. জেড এম শরীফ।

চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে কর্মরত কাস্টমসের সহকারী কমিশনার মহিউদ্দিন পাটোয়ারী সকাল সন্ধ্যাকে বলেন, “সংযুক্ত আরব আমিরাতের শারজাহ থেকে আসা একটি ফ্লাইটের যাত্রী আলাউদ্দিনের কাছ থেকে ইমিগ্রেশনের আগেই একটি প্যাকেট নেন বিমানবন্দরে কর্মরত স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জেড এম শরীফ।

“বিষয়টি নজরে আসে কাস্টমস কর্মকর্তাদের। পরে রাজস্ব কর্মকর্তারা তাকে চ্যালেঞ্জ করে কাস্টমসের কক্ষে আনেন। তল্লাশির পর তার কাছে চারটি সোনার বার পাওয়া যায়।”

এরপর আটক স্বাস্থ্য কর্মকর্তার স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে এয়ার এরাবিয়ার যাত্রী আলাউদ্দিনকে আটক করা হয়। তারা পরস্পর আত্মীয় পরিচয় দিয়েছেন।

কাস্টমস গোয়েন্দা দলের সহকারী পরিচালক আব্দুল মতিন তালুকদার বলেন, “এয়ার এরাবিয়ারের সকাল সাড়ে ৯টার ফ্লাইটে একজন যাত্রী চট্টগ্রাম নামেন। বিমানটি অবতরণের পর ওই যাত্রী অবৈধভাবে নিয়ে আসা সোনার বারগুলো ডা. শরীফকে দেন। তিনি পাচারের জন্য সোনার বারগুলো নিয়ে যাচ্ছিলেন। সন্দেহ হলে তাকে স্ক্যান করা হয়।”

কাস্টমসের ব্যাগেজ নিয়ম অনুযায়ী, একজন যাত্রী সর্বোচ্চ একটি সোনার বার (ওজন ১১৬ গ্রাম) শুল্ক পরিশোধ করে দেশে আনতে পারবেন। এজন্য তাকে ৪০ হাজার টাকা শুল্ক দিতে হয়।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist