Beta
রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪

হল-মার্ক দুর্নীতি : স্ত্রীসহ তানভীরের যাবজ্জীবন

হল-মার্কের তানভীর মাহমুদ ও জেসমিন ইসলাম। ২০১২ সালের ছবি।
হল-মার্কের তানভীর মাহমুদ ও জেসমিন ইসলাম। ২০১২ সালের ছবি।

সোনালী ব্যাংকের ঋণ জালিয়াতির মামলায় সাজা হয়েছে হল-মার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর মাহমুদ এবং তার স্ত্রী প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারপারসন জেসমিন ইসলামের।

এক যুগ আগের এই ঋণ কেলেঙ্কারির ঘটনার ১১ মামলার একটিতে মঙ্গলবার তাদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের রায় দেন ঢাকার ১ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আবুল কাশেম।

রায়ে বাকি আসামিদেরও বিভিন্ন মেয়াদের সাজা হয়েছে। তানভীর ও জেসমিন উভয়েই কারাগারে রয়েছেন।

২০১২ সালে সোনালী ব্যাংক থেকে জালিয়াতির মাধ্যমে ঋণ নিয়ে অর্থ আত্মসাতের ঘটনাটি প্রকাশ পেলে ওই বছরের ৪ অক্টোবর ঢাকার রমনা থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন।

সেই মামলায় অভিযোগ করা হয়, সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তাদের যোগসাজশে হল-মার্ক গ্রুপ মোট ২ হাজার ৬৮৬ কোটি ১৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ করে।

তদন্ত শেষে পরের বছরের ৭ অক্টোবর ২৬ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হয়। ২০১৬ সালে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় বিচার।

আসামিদের মধ্যে রয়েছেন- হল-মার্ক গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমেদ, টিঅ্যান্ড ব্রাদার্সের পরিচালক তসলিম হাসান, ম্যাক্স স্পিনিং মিলসের মালিক মীর জাকারিয়া, প্যারাগন গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুল ইসলাম, নকশী নিটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল মালেক, সাভারের হেমায়েতপুরের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মো. জামাল উদ্দিন সরকার, সোনালী ব্যাংকের হোটেল শেরাটন (বর্তমান ইন্টারকন্টিনেন্টাল) শাখার সাবেক সহকারী উপমহাব্যবস্থাপক মো. সাইফুল হাসান, নির্বাহী কর্মকর্তা আবদুল মতিন, ধানমণ্ডি শাখার জ্যেষ্ঠ নির্বাহী কর্মকর্তা মেহেরুন্নেসা মেরী, প্রধান কার্যালয়ের মহাব্যবস্থাপক ননী গোপাল নাথ, মীর মহিদুর রহমান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ুন কবির, উপব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) মাইনুল হক, উপমহাব্যবস্থাপক শেখ আলতাফ হোসেন ও সফিজউদ্দিন এবং এজিএম মো. কামরুল হোসেন খান।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist