Beta
রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪

বিশ্বকাপে খেলতেই টেস্টে ফিরেছেন হাসারাঙ্গা!

টেস্টে ফিরেই নিষিদ্ধ হাসারাঙ্গা। ছবি: টুইটার
টেস্টে ফিরেই নিষিদ্ধ হাসারাঙ্গা। ছবি: টুইটার

শ্রীলঙ্কার টি-টোয়েন্টির দলের বর্তমান অধিনায়ক ভানিন্দু হাসারাঙ্গা। যদিও বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ খেলতে পারেননি তিনি। চোটসংক্রান্ত কোনও ঝামেলা ছিল না, ছিল শৃঙ্খলাজনিত সমস্যা। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে শাস্তি পেয়েছিলেন এই লেগ স্পিনার। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ চলাকালীন আবারও নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছেন হাসারাঙ্গা। আর এই নিষেধাজ্ঞা শেষ করতে চতুরতার সঙ্গে হাসারাঙ্গাকে টেস্ট ক্রিকেটে ফিরিয়েছে শ্রীলঙ্কা!

এবারও আম্পায়ারের সঙ্গে অসদাচরণে শাস্তি পেয়েছেন তিনি। বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডের সিরিজের শেষ ম্যাচে আম্পায়ারিং নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করায় আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টের ২.৮ নম্বর ধারা ভেঙেছেন হাসারাঙ্গা। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিষয়টি নিশ্চিত করে জানিয়েছে, শাস্তি হিসেবে ম্যাচ ‍ফি’র ৫০ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে তাকে। একই সঙ্গে তার নামের পাশে যোগ হয়েছে তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট।

এ নিয়ে ২৪ মাসে আটটি ডিমেরিট পয়েন্ট হলো হাসারাঙ্গার। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, ২৪ মাস সময়ের মধ্যে কোনও খেলোয়াড় আটটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলে সেটি চারটি নিষেধাজ্ঞা পয়েন্টে রূপান্তর হবে। সেই শাস্তি হিসেবে ওই খেলোয়াড় দুই টেস্ট কিংবা চার ওয়ানডে কিংবা চার টি-টোয়েন্টিতে নিষিদ্ধ হবেন। যে সংস্করণের খেলা আগে, নিষেধাজ্ঞা সেই সংস্করণে কার্যকর হবে। হাসারাঙ্গার ক্ষেত্রে ঠিক এই বিষয়টিই ঘটেছে।

এই জায়গাতেই নাকি ‘মাস্টার প্ল্যান’ সাজিয়েছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের বিপক্ষে দুই টেস্টেই যেন হাসারাঙ্গার শাস্তি শেষ হয়ে যায়, সেকারণে অবসর ভাঙিয়ে এই লেগ স্পিনারকে টেস্ট দলে ফিরিয়েছে তারা। মঙ্গলবার টেস্ট সিরিজের দল ঘোষণা করেছে শ্রীলঙ্কা। ২০২৩ সালের আগস্টে টেস্ট থেকে অবসর নেওয়া হাসারাঙ্গাকেও তারা রেখেছে ১৭ সদস্যের স্কোয়াডে।

লাল বলের ক্রিকেটে হতাশাজনক পারফরম্যান্স ও সাদা বলের ক্রিকেটে মনোযোগী হতে টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসরে গিয়েছিলেন হাসারাঙ্গা। সেই ২০২১ সালে সবশেষ টেস্ট খেলা এই বোলার কিছু না করেই আবার এই সংস্করণে ফিরেছেন নাকি তার নিষেধাজ্ঞার সময় শেষ করার উদ্দেশ্যে।

সামনেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এর আগে আর কোনও আন্তর্জাতিক ম্যাচ নেই শ্রীলঙ্কার। ফলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে এই স্পিনারকে হারানোর শঙ্কা ছিল তাদের। কারণ টেস্ট দলে না থাকলে শাস্তি হিসেবে চারটি টি-টোয়েন্টিতে নিষিদ্ধ হবেন হাসারাঙ্গা। বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে শ্রীলঙ্কার ম্যাচ চারটি। পরের রাউন্ডে না গেলে অধিনায়ককে পাওয়া সম্ভব ছিল না তাদের। সেকারণেই বাংলাদেশের বিপক্ষে অবসর ভেঙে টেস্টে ফিরেছেন হাসারাঙ্গা। যাতে দুই ম্যাচের টেস্ট দিয়েই শাস্তি শেষ করতে পারেন!

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist