Beta
শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪

অ্যানেস্থেসিয়ার আগে কাউন্সেলিংয়ে জোর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

স্বাস্থ্যমন্ত্রী
ঢাকার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব কনভেনশন হলে এক অনুষ্ঠানে কথা বলছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

অস্ত্রোপচারের জন্য অ্যানেস্থেশিয়া দেওয়ার আগে রোগী ও তার স্বজনদের সঠিকভাবে কাউন্সেলিং করা হয় না বলে মনে করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন। নিজের দীর্ঘ কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা থেকে এই ধারণা তৈরি হয়েছে বলে জানালেন তিনি।

শনিবার ঢাকার বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব কনভেনশন হলে এক অনুষ্ঠানে সম্প্রতি অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়ার পর শিশুসহ কয়েক রোগীর মৃত্যুর ঘটনা এবং তার পরিপ্রেক্ষিতে সৃষ্ট পরিস্থিতির বিষয়ে কথা বলেন মন্ত্রী।

অস্ত্রোপচারের প্রয়োজনে অ্যানেস্থেসিয়া দেওয়ার ক্ষেত্রে পৃথিবীর সব দেশেই কখনো না কখনো জটিলতা তৈরি হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, “অ্যানেস্থেশিয়াতে কমপ্লিকেশন হয় না, পৃথিবীতে এমন কোনও দেশ আমার মনে হয় না আছে। সব দেশেই হয়। আমাদের দেশে যে অসুবিধাটা হয়, আমরা বোধহয় রোগীদের কাউন্সেলিংটা খুব কম করি।

“আমার বিশ্বাস, আমরা যদি ভালোভাবে রোগী ও তাদের পরিবারকে কাউন্সেলিং করি যে, অ্যানেস্থেসিয়া দিলে কী কী হ্যাজার্ড  হতে পারে, কী না পারে; তাহলে হয়ত সবাই জানত যে দুর্ঘটনা এমন অস্বাভাবিক কিছু না। আমেরিকা, লন্ডন সব জায়গায় খোঁজ নেন, সব জায়গাতেই হয়।”

রোগী মৃত্যুর ঘটনায় স্বজনদের ভাঙচুর, চিকিৎসকদের কারাগারে যাওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে সামন্ত লাল সেন বলেন, এ ধরনের ঘটনায় মন্ত্রী হিসেবে তাকে অস্বস্তিতে পরতে হয়।

‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক নেতৃত্ব এবং দেশের উন্নয়ন’ শীর্ষক এ আলোচনার আয়োজন করেছিল স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী বলেন, এসব রোগী মৃত্যুর ঘটনায় তার কাছে দুই পক্ষেরই অভিযোগ আসে। দুই পক্ষের কথা শুনে সবাইকে সুরক্ষা দেওয়াই তার দায়িত্ব বলে মনে করেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, “আমি ডাক্তারদেরকেও সুরক্ষা দেব, রোগীদেরকেও সুরক্ষা দিতে হবে আমার, এ দায়িত্ব আমার।”

অনুষ্ঠানে উপস্থিত চিকিৎসকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “আমি একটা কথা স্পষ্ট করে বলি, আপনারা যে যার জায়গায় বিশেষ করে গ্রামে গঞ্জে উপজেলায় সঠিক নিয়ম মেনে সুন্দরভাবে কাজ করেন, আপনাদের প্রটেকশন (সুরক্ষা) দেওয়ার দায়িত্ব আমার।”

বিনা দোষে চিকিৎসকদের ধরে নিয়ে যাওয়া কিংবা তাদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটলে তা মেনে নেবেন না বলেও আশ্বস্ত করেন তিনি।

সেইসঙ্গে চিকিৎসকদের প্রতি যার যা কাজ, সেটা সূচারুভাবে করার জন্যও তাদের প্রতি অনুরোধ জানান সামন্ত লাল সেন।

তিনি বলেন, “আপনাদের কাছে একটাই অনুরোধ। আপনারা সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে আপনাদের কাজ করেন, কাউন্সিলিং করেন। দুর্ঘটনা হতেই পারে, সেটা অস্বাভাবিক কিছু না। কিন্তু আমাদের কাজ যেন সুন্দরভাবে সুষ্ঠুভাবে হয়।”

ঈদের পর থেকে তৃণমূল স্বাস্থ্যসেবার মানোন্নয়নে আবারও মাঠে নামবেন বলে জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, “প্রয়োজনে প্রত্যন্ত গ্রামে-গঞ্জে চলে যাব। দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থাকে মানুষের জন্য সহজলভ্য করতে যা যা করার দরকার আমি তাই করব।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist