Beta
বুধবার, ২২ মে, ২০২৪
Beta
বুধবার, ২২ মে, ২০২৪

বেলিংহামকে ব্যালন ডি’অর জয়ের দৌড়ে দেখছেন নয়ার

রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার জুড বেলিংহাম। ছবি: টুইটার
রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার জুড বেলিংহাম। ছবি: টুইটার
Picture of ক্রীড়া ডেস্ক

ক্রীড়া ডেস্ক

সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে গিয়েই রিয়াল মাদ্রিদ সমর্থকদের মন জিতে নিয়েছেন জুড বেলিংহাম। মাঝমাঠের শক্তি বাড়াতে তাকে কিনেছিল মাদ্রিদের ক্লাবটি, অথচ সেখানে গিয়ে হয়ে উঠেছেন পুরোদস্তুর গোলস্কোরার! রিয়ালের সাফল্যযাত্রায় অগ্রণী ভূমিকায় ইংলিশ তারকা। দলীয় পারফরম্যান্সে দ্যুতি ছড়িয়ে ব্যক্তিগত সাফল্যের পথ তৈরি করে যাচ্ছেন বেলিংহাম। অনেকের বিচারে সামনের ব্যালন ডি’অর দৌড়ে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হবেন তিনি।

তাদেরই একজন বায়ার্ন মিউনিখ গোলকিপার মানুয়েল নয়ার। বুধবার (৮ মে) চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে মুখোমুখি হচ্ছে রিয়াল-বায়ার্ন। বার্নাব্যুর ফিরতি লেগে নামার আগে প্রতিপক্ষ দলের বেলিংহামকে প্রশংসার জোয়ারে ভাসালেন জার্মান নাম্বার ওয়ান। ইংলিশ ফুটবলারের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ নয়ারের চোখে ব্যালন ডি’অর জয়ের পথে শক্ত অবস্থানে আছেন বেলিংহাম।

আলিয়েঞ্জ অ্যারেনার প্রথম লেগ কেউ জেতেনি। তবে বায়ার্নের মাঠ থেকে ২-২ গোলে ড্র করে ফেরায় সুবিধাজনক জায়গায় রয়েছে রিয়াল। কারণ ফিরতি লেগ খেলবে ঘরের মাঠে। এই ম্যাচ জিতলেই ১৫তম চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের পথে শেষ ধাপে পৌঁছে যাবে মাদ্রিদের অভিজাতরা।

বায়ার্ন কোচ টমাস টুখেল জানিয়েছেন, বার্নাব্যুতে জেতা কঠিন তবে অসম্ভব নয়। অধিনায়ক নয়ারের বক্তব্যও প্রায় একই। তবে তিনি বিশেষভাবে নজর রাখছেন বেলিংহামের ওপর। ২০ বছর বয়সী তারকার বিপক্ষে আগেও তিনি খেলেছেন, যখন বেলিংহাম ছিলেন বরুসিয়া ডর্টমুন্ডে। সেকারণে রিয়ালের এই মিডফিল্ডারের সামর্থ্য তার জানা।

বায়ার্ন মিউনিখ অধিনায়ক মানুয়েল নয়ার। ছবি: টুইটার

বেলিংহামের ব্যালন ডি’অর জেতা প্রসঙ্গে নয়ার বলেছেন, “অবশ্যই (জিততে পারে ব্যালন ডি’অর)। যখন আপনি সব প্রতিযোগিতায় প্রায় শেষ পর্যন্ত খেলবেন, বিশেষ করে চ্যাম্পিয়নস লিগে, একই সঙ্গে লা লিগা জিতবেন, তখন অবশ্যই আপনি ব্যালন ডি’অর জয়ের দৌড়ে থাকবেন। এরপরও বিষয়টা নির্ভর করছে ইংল্যান্ডের ইউরোর পারফরম্যান্সের ওপর। আমরা তার সামর্থ্য বুন্দেসলিগাতেই দেখেছি (যখন বেলিংহাম ডর্টমুন্ডে খেলতেন)।”

তবে এখনবার বেলিংহাম যে অন্যরকম সেটিও জানিয়ে রাখলেন নয়ার, “এখানে (রিয়াল মাদ্রিদ) সে আরও বেশি অ্যাটাকিং পজিশনে খেলে। শুরু থেকেই সে এত গোল করবে, কেউই প্রত্যাশা করেনি। করিম বেনজেমা চলে যাওয়ার পর আক্রমণাত্মক শক্তির এমন একজনকে পাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত