Beta
রবিবার, ১৪ এপ্রিল, ২০২৪

ভালোবাসায় সিক্ত কেট

প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটনকে আন্তরিক বার্তা পাঠাচ্ছে বিশ্ববাসী।
প্রিন্স উইলিয়াম ও কেট মিডলটনকে আন্তরিক বার্তা পাঠাচ্ছে বিশ্ববাসী।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন প্রিন্সেস অব ওয়েলস কেট মিডলটন। খবরটি চাউর হওয়ার পর থেকে ভক্ত-অনুরাগীদের ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন তিনি। বাদ যাচ্ছেন না তার স্বামী প্রিন্স উইলিয়ামও।

কেনসিংটন প্রাসাদের এক মুখপাত্র শনিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।   

এ বছরের জানুয়ারিতে মধ্য লন্ডনের একটি ক্লিনিকে ভর্তি হয়েছিলেন ৪২ বছর বয়সী কেট। সেখানে তার পেটে অস্ত্রোপচার হয়। সব মিলে ১৩ রাত ওই ক্লিনিকে ছিলেন তিনি।

কেটের ঠিক কী হয়েছিল, এ নিয়ে রাজপরিবারের পক্ষ থেকে স্পষ্টভাবে কিছু বলা না হলেও তারা সে সময় জানিয়েছিল, কেটের শারীরিক সমস্যা ক্যান্সারজনিত নয়। 

তবে শুক্রবার ইনস্টাগ্রামে হাজির হয়ে এক ভিডিও বার্তায় কেট জানান, জানুয়ারিতে পেটে অস্ত্রোপচারের পর তাকে শারীরিক পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হয়। পরীক্ষা শেষে চিকিৎসকরা নিশ্চিত হন, তিনি ক্যান্সারে আক্রান্ত।

ভিডিও বার্তায় কেট এও জানান, তার ক্যান্সারের চিকিৎসা চলছে।

কেটের ভিডিও বার্তাটিতে প্রায় ৫০ লাখ মানুষ ‘লাইক’ রিঅ্যাকশন দিয়েছে।          

ইনস্টাগ্রামের ওই ভিডিও বার্তা প্রকাশের পর থেকে ব্রিটিশ রাজা চার্লসের বড় ছেলে প্রিন্স উইলিয়াম ও তার স্ত্রী কেট মিডলটন ভক্ত-অনুরাগীদের কাছ থেকে আন্তরিক বার্তা পাচ্ছেন।

প্রিন্স উইলিয়াম ও প্রিন্সেস অব ওয়েলস কেট লন্ডনের কেনসিংটন প্রাসাদে থাকেন। এই প্রাসাদের মুখপাত্র জানিয়েছেন, “প্রিন্সেস অব ওয়েলসের ভিডিও বার্তাটি দেখার পর যুক্তরাজ্য, কমনওয়েলথভুক্ত দেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ উইলিয়াম-কেট দম্পতির উদ্দেশে আন্তরিক বার্তা পাঠান। এতে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েছেন তারা।

“মানুষের উষ্ণতা ও সমর্থন আলোড়িত করেছে উইলিয়াম-কেট দম্পতিকে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে মানুষ যে তাদের গোপনীয়তার অনুরোধ বিবেচনা করেছেন, এর জন্য তারা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।”

সপরিবারে কেট মিডলটন।

বিবিসি জানিয়েছে, কেনসিংটন প্রাসাদের মুখপাত্রের বক্তব্যে দুটি বার্তা আছে। একটিতে ধন্যবাদ জানানো হয়েছে। অন্যটিতে মার্জিত ভঙ্গিতে সতর্ক করা হয়েছে।

ওই বক্তব্যের মধ্য দিয়ে কেনসিংটন প্রাসাদ যেন লোকজনদের জানাতে চেয়েছে, ব্রিটিশ রাজবধূর শারীরিক সমস্যা নিয়ে জানুয়ারি থেকে অনেক জল্পনা-কল্পনা হয়েছে। এবার এসব বন্ধ করেন। উইলিয়াম-কেটকে তাদের মতো করে থাকতে দিন।

জানুয়ারিতে কেটের অস্ত্রোপচারের পর থেকে তার আসলে কী হয়েছে, এ নিয়ে নানা ধরনের মুখরোচক গল্পে মেতে ওঠে সংবাদমাধ্যম থেকে শুরু করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম।

কেনসিংটন প্রাসাদ আশা করছে, শরীরে ক্যান্সার বাসা বাঁধা নিয়ে কেটের নিজের স্বীকারোক্তি তাকে ঘিরে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটাবে।

এদিকে কেটের শ্বশুর রাজা চার্লসও ক্যান্সারে আক্রান্ত। এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে ৭৫ বছর বয়সী রাজার দেহে এই রোগ শনাক্ত হয়।

বাকিংহাম প্রাসাদ সে সময় জানিয়েছিল, চিকিৎসা করে পুরোপুরি সেরে উঠবেন বলে আশাবাদী রাজা চার্লস। পুত্রবধূ কেটের মতো চার্লসও জানুয়ারিতে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। সেখানে তার মূত্রথলির চিকিৎসা হয়।                

                    

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist