Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

শান্ত আকাশে লিটন পাতালে  

টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি-তিন ফরম্যাটেই এক সময় বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন লিটন দাস। সাকিব আল হাসান বা তামিম ইকবালের ইনজুরি কিংবা অনুপস্থিতিতে তার ওপর ভরসা রেখেছিল বিসিবি। নাজমুল হোসেন শান্তকে অধিনায়ক করায় সেই ভরসায় যেন ছেদ পড়েছে বিসিবির। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে লিটন দাস বললেন, “বোর্ডের কাউকে জিজ্ঞাসা করুন।”

মঙ্গলবার চট্টগ্রামে বিপিএল ম্যাচের পর জাতীয় দলের নেতৃত্ব না পাওয়ার কারণ জানতে চাইলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের অধিনায়ক বলেছেন, “এটা আমি জানি না। এটা বোর্ডের কাউকে প্রশ্ন করলে ভালো হয়। ওটা এখন অতীত হয়ে গেছে। এখন বিপিএলে আছি, বিপিএল নিয়েই থাকি। যেহেতু ইতোমধ্যে নতুন অধিনায়ক ঘোষণা করে দিয়েছে, এখানে তো কথা বলার কিছু নেই।”

লিটন এখন পর্যন্ত একটি করে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি এবং ৫টি ওয়ানডেতে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। সাকিব-তামিমদের পর ভবিষ্যত নেতা হিসেবে বোর্ডের প্রথম পছন্দে ছিলেন তিনি। বিসিবির সূদুরপ্রসারী পরিকল্পনায় ছিলেন এই ব্যাটার।

কিন্তু ২০২৩ বিশ্বকাপের মাঝপথে দুই বার ছুটি নিয়ে দেশে এসেছিলেন লিটন। প্রথমবার বোর্ড থেকে ছুটি দেওয়া হয় নিয়ম মেনে। কিন্তু দ্বিতীয়বার অনেকটা বোর্ড ও টিম ম্যানেজমেন্টের অনিচ্ছ্বা সত্ত্বেও ছুটি নিয়েছিলেন তিনি। এরপর তিনি বোর্ডের পছন্দের তালিকায় নীচে নেমে যান।

লিটনের সঙ্গী হতাশা। ছবি: টুইটার

আরো পিছিয়ে পড়েন বিশ্বকাপের পর দেশের মাটিতে নিউজিল্যান্ড সিরিজে, যখন টেস্টের নিয়মিত অধিনায়ক সাকিবও চোটগ্রস্ত। তখন লিটনকে অধিনায়ক হিসাবে চাইলেও তিনি হেঁটেছিলেন উল্টোরথে। প্রথম সন্তানের পাশে থাকতে ওই সিরিজ থেকে বিশ্রাম নিয়েছিলেন এই ব্যাটার। তখন আসলে বিপদেই পড়েছিল বিসিবি।

তাই ব্যাপারটি ভালো ভাবে নেননি বিসিবি কর্তারা। ওই সময় ক্রিকেট অপারেশন্সের প্রধান জালাল ইউনুস বলেছিলেন, “দেশের হয়ে খেলার বিষয়টি বুকের ভেতর থেকে আসতে হয়। এটা স্বেচ্ছায় না আসলে তো কাউকে জোর করে খেলানো যায় না।”

ওই সময় বিসিবির ডাকে সাহস নিয়ে সাড়া দেন নাজমুল হোসেন শান্ত। তাকে করা হয় টেস্ট সিরিজের অধিনায়ক। অথচ দৃশ্যপটেই ছিলেন না এই ব্যাটার তবে সময়ের ডাকে সাড়া দিয়েছিলেন। এরপর নতুন অধিনায়কের নেতৃত্বে বাংলাদেশ দল দেশের মাটিতে কিউইদের হারায় প্রথমবারের মতো। ঢাকায় শেষ টেস্ট হেরে সিরিজ ড্রয়ের পর নিউজিল্যান্ডে অ্যাওয়ে সিরিজে টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডের অধিনায়ক করা হয় শান্তকে। ওখানে দুটো সিরিজ হারলেও নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথমবারের মতো একটি করে ওয়ানডে ও টি-টেয়েন্টি জেতে তার দল। এরই পুরস্কার হিসাবে সোমবার ঘটা করে ২০২৪ সালের জন্য তিন ফরম্যাটে শান্তকে অধিনায়ক করে বিসিবি।

শান্ত সাহসের পুরস্কার পেয়ে আকাশে উড়ছেন আর সেই ‘বিশ্রাম’ লিটনকে নিয়ে গেছে পাতালে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist