Beta
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

‘এমকেএস’ মেইড ইন বাংলাদেশ

‘এমকেএস’ বিষয়টি কি তা এতদিনে জেনে গেছেন ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা। নতুন করে আর পরিচয় করিয়ে দেওয়ার কিছু নেই।  আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করাটা বাকি ছিল কেবল। তাও হয়ে গেল সোমবার ঢাকার একটি হোটেলে জাঁকজমক আয়োজনের মধ্য দিয়ে। ব্যাট প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ‘‘এমকেএস’’ কে এবার পুরো ক্রিকেট দুনিয়া চিনবে ‘‘মেইড ইন বাংলাদেশ’’ হিসেবে। 

গত ডিসেম্বরে বাংলাদেশের প্রথম ক্রীড়াসামগ্রী প্রস্তুতকারক হিসেবে আইসিসি থেকে স্বীকৃতি পায় এই প্রতিষ্ঠান। জাতীয় ক্রিকেটার মেহেদি হাসান মিরাজের (এম), ইমরুল কায়েসের (কে) এবং ব্যাট যিনি কাস্টমাইজ করবেন বা তৈরি করবেন সেই এইচএম আফতাব শাহিনের (এস) নামের প্রথম অক্ষর মিলিয়ে এই ‘‘এমকেএস’’ নাম রাখা হয়েছে।

আইসিসি থেকে ‘‘এমকেএস স্পোর্টস’’ নামে অনুমোদন পেয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। শুরুতে ব্যাট নিয়ে ক্রিকেট বাজারে আত্মপ্রকাশ করেছে তারা। আপাতত হ্যান্ড গ্লাভসও আছে তাদের। দ্রুতই বল প্রস্তুতে পা বাড়াতে এমকেএস। নতুন হলেও ইতিমধ্যে এমকেএস ব্যাটের ব্যাপক চাহিদা তৈরি হয়েছে দেশের বাজারে। দেশে বিক্রির আগেই ইংল্যান্ড থেকে অর্ডার আসছে ব্যাটের।

প্রতিষ্ঠানটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনে এদিন ক্রীড়ামন্ত্রী ও বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন থেকে শুরু করে সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া এই ব্যাটের শুভেচ্ছাদূত হওয়া যুব বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য পারভেজ হোসেন ইমন, আকবর আলি, মাহমুদুল হাসান জয়, শাহাদাত হোসেন দিপু, রাকিবুল হাসান এবং রিশাদ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

যুব বিশ্বকাপ জয়ী ক্রিকেটাররা খেলবেন বাংলাদেশে তৈরি এই ব্যাট দিয়ে

দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিশ্বে এই ব্যাটের পরিচিত হওয়ার আশা রেখেছেন অতিথিরা। সাকিব আল হাসান বলেছেন, ‘‘ওদের ব্যাট আমার এখনও ব্যবহার করার সুযোগ হয়নি। ওরা বলেছে আমাকে একটা ব্যাট দিবে। এই প্রতিষ্ঠানের জন্য সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখছে ইমরুল। সে নিজের ইংল্যান্ডে গিয়ে কাঠ দেখে নিয়ে আসছে। শাহিন ভাই তো ব্যাট বানাচ্ছে আর মিরাজ শুধু বিনিয়োগ করেছে। আশা করি ওরা বাংলাদেশকে ভালো মানের ব্যাট দিতে পারবে।’’

দেশের অপর তারকা ক্রিকেটার তামিম ইকবাল নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে বলেছেন, ‘‘আমরা অন্য দলের ড্রেসিংরুমে গিয়ে অন্য ক্রিকেটারদের কাছে ব্যাট চাইতাম। অনেক সময় ওরা মুখের ওপর না করে দিত। এমন না যে ব্যাট কেনার টাকা আমাদের নেই, ব্যাপারটা হল আমরা ভালো ব্যাট পাই না। এমকেএস এই অভাবটা দূর করবে। আমি ওদের ব্যাট দেখেছি, সিএ-এসএস ব্যাটের সঙ্গে কোন পার্থক্য আমি পাইনি। আমি খুব দ্রুত এই বিপিএলেই এমকেএস ব্যাট দিয়ে খেলবো।’’

দেশের প্রথম ব্যাট প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানটি বিশেষত্ব হলো ইংলিশ উইলো। সেরা মানের বিভিন্ন ধরনের ইংলিশ উইলো বাছাই করে আনা হচ্ছে ব্যাট প্রস্তুতের জন্য। ক্রিকেটারদের তাই বিদেশি মানের ব্যাট নিয়ে আর দুশ্চিন্তা করতে হচ্ছে না। ইতোমধ্যে ২০২৪ যুব বিশ্বকাপ খেলা ক্রিকেটার ও নারী ক্রিকেটারদের এই কোম্পানির ব্যাট উপহার দিয়েছেন ইমরুল-মিরাজরা।

শুধু ব্যাট কেনাই নয়, পছন্দ মতো অর্ডার করেও ব্যাট পাবেন যে কেউ। রাজশাহীতে চার বিঘা জমিতে তৈরি করা কারখানায় ‘‘ব্যাটের ডাক্তার’’ শাহিন দিন-রাত এক করে যাচ্ছেন সেরা ব্যাট তৈরিতে। ক্রিকেট বলের ব্যাটের পাশাপাশি দ্রুত টেপটেনিস বলের ব্যাটও বাজারে আনবে প্রতিষ্ঠানটি।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist