Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

হংকংয়ে না খেলার ‘সত্যতা’ তুলে ধরলেন মেসি

লিওনেল মেসির খেলা দেখবেন, এই আশায় স্টেডিয়ামে এসেছিলেন হংকংয়ের প্রায় ৪০ হাজার দর্শক। কিন্তু মেসি মাঠে নামেননি। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড বেঞ্চে বসে থাকায় তাদের ভালোবাসা ক্ষোভে রূপ নেয়। গ্যালারি থেকে ভেসে আসে দুয়োধ্বনি। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে তিনি খেলেননি, এটা আগেই জানা গেছে। এবার মেসির ‘সত্যতা’ জানিয়ে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করলেন।

রবিবার প্রীতি ম্যাচে হংকং একাদশের বিপক্ষে মাঠে নেমেছিল মেসির ইন্টার মায়ামি। হংকং সরকার জানিয়েছে, ম্যাচটিতে অন্তত ৪৫ মিনিট খেলার চুক্তি করেছিলেন মেসি। কিন্তু পুরোটা সময়ই বেঞ্চে ছিলেন বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক। এ নিয়ে তোলপাড় গোটা হংকং। অবস্থা বেগতিক দেখে আয়োজক ও সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হয়েছে। ইন্টার মায়ামিও মেসির না খেলার বিষয়টি পরিষ্কার করে।

এবার মেসি জানালেন, তার খেলার ইচ্ছা ছিল, কিন্তু পরিস্থিতি সেটি হতে দেয়নি। আটবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী বলেছেন, “সত্য হলো, ভাগ্য খারাপ আমি খেলতে পারিনি হংকং ম্যাচ। এটাও সত্য আমি সবসময় খেলতে চাই। বিশেষ করে এতটা পথ পাড়ি দিয়ে এসে, যেখানে মানুষজন আমাদের খেলা দেখতে মুখিয়ে থাকে, সেখানে তো আরও বেশি করে চাই (খেলতে)। দুর্ভাগ্যবশত, ফুটবলে এটা হয়েই থাকে। যেকোনও ম্যাচেই হতে পারে এটা, যেখানে আপনার খেলা হবে না।”

হংকংয়ে খেলতে পারেননি। সেকারণে দেশটির ফুটবলভক্তদের একটা আশ্বাস দিয়ে রাখছেন মেসি, “আশা করছি আমরা এখানে (হংকং) ফিরতে পারব। এখানে আরেকটি ম্যাচ খেলব, যেখানে আমিও উপস্থিতি থাকব। জানি না সেটা কবে। তবে সত্য হলো, এবার এখানে খেলতে না পারাটা লজ্জার।”

হংকং সফর শেষে ইন্টার মায়ামির পরবর্তী ম্যাচ জাপানে। ওখানকার ভিসেল কোবের বিপক্ষে মধ্যপ্রাচ্য ও এশিয়া সফরের শেষ ম্যাচ খেলবে মেজর লিগ সকারের দলটি। এই ম্যাচে কি মেসি খেলবেন? উত্তরটা আর্জেন্টাইন তারকার মুখেই শোনা যাক, “সত্যি বলতে গত কয়েকদিনের চেয়ে এখন আমি অনেকটা ভালো অনুভব করছি। তারপরও সবকিছু নির্ভর করছে অনুশীলনের ওপর। আমাকে যদি সত্য বলতে হয়, তাহলে বলব এখনও জানি না খেলব কিনা (ভিসেল কোবের বিপক্ষে)। তবে আমি ভালো অনুভব করছি এবং খেলতে চাই।”

হংকংয়ের অভিজ্ঞতা নিশ্চয়ই চাইবেন না মেসি। বিশ্বকাপজয়ী তারকার খেলা দেখতে না পেরে দর্শকেরা বেজায় চটেছিলেন। সেকারণেই কিনা ম্যাচ শেষে ইন্টার মায়ামির অন্যতম মালিক ডেভিড বেকহাম কথা শুরু করতেই গ্যালারি উত্তাল হয়ে ওঠে ‘আমরা টাকা ফেরত চাই’ স্লোগানে!

হংকং সরকার জানিয়েছে, মেসির অন্তত ৪৫ মিনিট খেলার কথা ছিল। এজন্যই দেশটির সংস্কৃতি, ক্রীড়া ও পর্যটন সচিব কেভিন ইয়াং বারবার বলেছেন, মেসি খেলবেন। তাদের জানানো হয়েছিল, চোটের কারণে হয়তো শেষের ১০ মিনিট খেলতে পারবেন না সাবেক বার্সেলোনা ফরোয়ার্ড। যদিও কথা আর কাজের মিল হয়নি।

মেসির খেলা দেখতে হংকং স্টেডিয়ামে জড়ো হয়েছিল ৩৮ হাজার ৩২৩ জন দর্শক। এদের প্রত্যেকে টিকিটের পেছনে খরচ করেছেন ১ হাজার হংকং ডলারের বেশি। বাংলাদেশ মুদ্রায় প্রত্যেক টিকিটের দাম পড়েছে ১৪ হাজার টাকা।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist