Beta
সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪

গ্রামীণফোনে ন্যূনতম রিচার্জসীমা ২০ টাকাই থাকছে

গ্রামীণফোন নেটওয়ার্ক।

গ্রাহক অসন্তোষের কারণে ন্যূনতম ব্যালান্স রিচার্জসীমা ৩০ টাকা থেকে সরে আগের ২০ টাকাই রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে গ্রামীফোন।

এই মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরটি এর আগে গত মঙ্গলবার (৯ জানুয়ারি) এসএমএস দিয়ে জানিয়েছিল, গ্রাহকদের সর্বনিম্ন ব্যালান্স রিচার্জ করতে হবে ৩০ টাকা। এই সিদ্ধান্ত বুধবার থেকে কার্যকর হওয়ার কথা ছিল।

সর্বনিম্ন ব্যালান্স রিচার্জসীমা ৩০ টাকা করার ঘোষণার পর থেকে গ্রাহকরা এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সোশাল মিডিয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছিলেন। বিভিন্ন ধরনের ইভেন্ট করে গ্রামীণফোনকে বয়কট করার আহ্বান জানান অনেকে। 

গ্রামীণফোনের গ্রাহক কামরুন নাহার সকাল সন্ধ্যাকে বলেন, ‘‘সর্বনিম্ন রিচার্জ ৩০ টাকা করার সিদ্ধান্তটি ভালো ছিল না। কারণ স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য ২০ টাকা রিচার্জ করা তুলনামূলক সহজ ছিল।

‘‘তবে কেবল স্বল্প আয়ের মানুষ নয়, স্বচ্ছল মানুষদেরও অনেক সময় ২০ টাকা রিচার্জের দরকার হতে পারে। অনেক সময় অনেকের মোবাইল ব্যাংকিং হিসাবে ২০ টাকা অবশিষ্ট থাকলে তা দিয়ে ফোনের রিচার্জ করতেন। তাৎক্ষণিকভাবে এতে অনেক উপকার হয়।’’

ওই গ্রাহক বলেন, ‘‘একটি শ্রেণির মানুষ আছে যাদের ভাই মোবাইলফোনে এখন আর কথা বলার দরকার হচ্ছে না। ইমো বা হোয়াটসআপে কথা বলছেন। ফলে ফোনের মেয়াদ বাড়ানোর জন্য তারা ২০ টাকা রিচার্জ করে। ফোনের ব্যালান্স তাদের খরচ হয় না।’’

‘‘আবার অনেকে বিভিন্ন প্রয়োজনে একাধিক মোবাইল অপারেটরের সংযোগ ব্যবহার করছেন বিকাশ বা নগদের মতো একাধিক হিসাব পরিচালনার জন্য। এসব ফোন দিয়ে তারা কোনও কথাই তেমন বলেন না। একারণে যত বেশি রিচার্জ করতে হবে, ততই তাদের টাকা জমা থাকবে বা অপ্রয়োজনে কথা বলে টাকা শেষ করতে হবে।’’

তবে মঙ্গলবার রাতে গ্রামীণফোন জানিয়েছে, তারা সর্বনিম্ন ৩০ টাকা রিচার্জের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে।

গ্রামীণফোনের হেড অব কমিউনিকেশনস শারফুদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সকাল সন্ধ্যাকে বলেন, ‘‘আমরা এটা এখন বাস্তবায়ন করছি না। এ বিষয়ে বিটিআরসির সঙ্গে অলোচনা হবে। সেই আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করব।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘একটি বিষয় উল্লেখ্য যে সর্বনিম্ন ব্যালান্স রিচার্জ ৩০ টাকা করলেও গ্রাহক সুবিধার্থে গ্রামীণফোনের ১৪ টাকা, ১৯ টাকা এবং ২৯ টাকা রিচার্জে মিনিট প্যাক, ২০ টাকার ব্যালান্স রিচার্জ কার্ড, ১৪ টাকা ও ১৯ টাকার মিনিট ও ডাটা কার্ড, ২৯ টাকার ডাটা কার্ড অপশনগুলো চালু থাকায় গ্রাহকরা তা ব্যবহার করতে পারতেন।’’

গ্রাহক ও আয়ের দিক থেকে দেশের বৃহত্তম টেলিকম অপারেটর গ্রামীণফোন গ্রাহক পর্যায়ে ন্যূনতম রিচার্জসীমা ১০০ শতাংশ বাড়ানোর দেড় বছরের মাথায় আবারও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

২০২২ সালের ১ জুলাই অপারেটরটি সর্বনিম্ন রিচার্জসীমা ১০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০ টাকা করেছিল। অন্য অপারেটররাও একই পথ বেছে নেয়। রবি ও বাংলালিংক তাদের সর্বনিম্ন রিচার্জের পরিমাণ বাড়িয়ে ২০ টাকা করে।

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) সূত্রে জানা যায়, গ্রামীণফোনের এই উদ্যোগের বিষয়টি টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থার নজরে আসার পর অপারেটরটিকে তারা এই সিদ্ধান্ত না নেওয়ার নির্দেশনা দেয়। তবে সামগ্রিকভাবে সব অপারেটরদের সর্বনিম্ন রিচার্জসীমা কত হবে, সে বিষয়ে বুধবার বিটিআরসি কার্যালয়ে একটি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। 

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist