Beta
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪
Beta
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪

রাখাইনে ৫ ঘাঁটি হারানোর পর সেতু উড়িয়ে দিল জান্তা

রাখাইন প্রদেশের বুথিডাং শহরের প্রবেশ পথের প্রধান সেতুটি উড়িয়ে দিয়েছে মিয়ানমার জান্তার বাহিনী। ছবি: আরাকান প্রিন্সেস মিডিয়া।
রাখাইন প্রদেশের বুথিডাং শহরের প্রবেশ পথের প্রধান সেতুটি উড়িয়ে দিয়েছে মিয়ানমার জান্তার বাহিনী। ছবি: আরাকান প্রিন্সেস মিডিয়া।
Picture of সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

রাখাইনের বুথিডং শহর এলাকায় একটি মিলিটারি অপারেশনস কমান্ডসহ মিয়ানমারের জান্তা সরকারের আরও পাঁচটি ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তর দখল করে নিয়েছে আরাকান আর্মি।

এর প্রতিক্রিয়ায় জান্তার বাহিনী সোমবার দেশটির রাখাইন রাজ্যের বুথিডংয়ের মূল শহরের প্রবেশপথের প্রধান একটি সড়ক সেতু উড়িয়ে দিয়েছে বলে ইরাবতীয় এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

গত ২ মে আরাকান আর্মি বুথিডংয়ের মূল শহরের প্রায় চার মাইল পূর্বে অবস্থিত এমওসি-১৫ ঘাঁটিটি দখল করে নেয়। এসময় জান্তা বাহিনীর ডেপুটি কমান্ডার ও শত শত সেনাকে তাদের পরিবারের সদস্যসহ বন্দি করা হয়।

এরপর ৩ মে আরাকান আর্মির সদস্যরা শহরের লাইট ইনফ্যান্ট্রি ব্যাটালিয়ন ৫৫১ সদর দপ্তরও দখল করে নেয়।

আরাকান আর্মি এমওসি-১৫ ও এলআইবি-৫৫১ ঘাঁটি থেকে পালিয়ে আসা জান্তা সেনাদের আক্রমণ করায় শহরের অন্যান্য এলাকায়ও সংঘর্ষের খবর পাওয়া গেছে। আরাকান আর্মি জানিয়েছে, হামলায় বহু জান্তা সেনা নিহত হয়েছে।

রাখাইনের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, পরাজয়ের পর জান্তা বাহিনী মাইন দিয়ে সোমবার বিকাল পৌনে ৪টার দিকে মায়ু নদীর বড় সেতুটি উড়িয়ে দেয়। সেতুটি আরাকান প্রদেশের মংডু, বুথিডং ও পোন্নাগুন শহরের মধ্যে সংযোগ স্থাপনকারী প্রধান সড়কে অবস্থিত।

স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম আরাকান বে নিউজে আকাশ থেকে তোলা একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে, যেখানে সেতুটি ধ্বংস করার দৃশ্য দেখা গেছে।

স্থানীয় বাসিন্দারা রাখাইনের গণমাধ্যমকে বলেছেন, বুথিডংয়ের মূল শহরে আরাকান আর্মির হামলা ঠেকাতে জান্তা সেনারা সেতুটি ধ্বংস করে দিয়েছে। জান্তা বাহিনী এখনও মূল শহরটি নিয়ন্ত্রণ করছে।

মিলিটারি অপারেশনস কমান্ড-১৫ দখলের পর কয়েকশ জান্তা সেনা আত্মসমর্পণ করে।

এর আগে গত ২৫ এপ্রিল জান্তা সেনারা বুথিডং শহরতলীতে দুটি গ্রামকে যুক্তকারী আরেকটি সেতু উড়িয়ে দেয়।

আরাকান আর্মি বলেছে, কয়েক মাস আগে বুথিডং শহর এলাকায় আক্রমণ শুরু করার পর থেকে তারা সেখানে ১৩টি জান্তা ব্যাটালিয়নের সদর দপ্তরগুলোর এক তৃতীয়াংশেরও বেশি দখল করে নিয়েছে।

তারা রাখাইনের মংডু, অ্যান, কিয়াউকফিউ ও থান্ডওয়ে শহরে জান্তা সেনাদের অবস্থানগুলোতেও হামলা চালাচ্ছে।

ফেব্রুয়ারিতে আরাকান আর্মির যোদ্ধারা রাখাইন রাজ্যের রাজধানী সিত্তে ঘেরাও করার পর জান্তা বাহিনী শহরটির প্রবেশ পথের দুটি প্রধান সড়ক সেতু ধ্বংস করে।

এরপর ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে তাংগাপ শহর এলাকার মা-ই শহর থেকে কিয়াউকফিউ শহর এলাকায় পালিয়ে যাওয়ার সময় জান্তা সেনারা এর দুটি প্রধান সড়ক সেতু উড়িয়ে দেয়।

আরাকান আর্মি গত বছরের নভেম্বরে রাখাইন রাজ্য ও দক্ষিণ চিন রাজ্যের পালেতওয়া শহর এলাকায় মিয়ানমারের সেনা সরকারের অবস্থানগুলোতে বড় আকারের আক্রমণ শুরু করে।

এরপর থেকে আরাকান আর্মি জান্তাবাহিনীর প্রায় ১৮০টি সেনাঘাঁটি দখল করেছে, যার মধ্যে বেশ কয়েকটি সামরিক সদর দপ্তরও রয়েছে। এ ছাড়া তারা রাখাইনের ১৭টি শহর এলাকার মধ্যে ছয়টি, ছয়টি শহর এলাকার বাইরে আরও তিনটি শহর এবং দক্ষিণ চিন রাজ্যের পালেতওয়া শহর এলাকাটিও দখল করে নিয়েছে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত