Beta
শনিবার, ২ মার্চ, ২০২৪

‘অনভিজ্ঞ’ নাকভি পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রধান

নতুন পিসিবি চেয়ারম্যান মহসিন নাকভির (মাঝে) সঙ্গে প্রধান নির্বাচক ওয়াহাব রিয়াজ (ডানে) ও প্রধান অপারেটিং অফিসার সালমান নাসির। ছবি: পিসিবি

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের অন্তর্বর্তীকালীন মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন তিনি। সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে তার সম্পর্ক আরও আগে থেকে। তবে কোনও পর্যায়ে ক্রিকেটে কাজ করার অভিজ্ঞতা নেই। ক্রিকেট ‘অনভিজ্ঞ’ সেই মহসিন নাকভির কাঁধেই পাকিস্তান ক্রিকেটের দায়িত্ব!

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) নতুন চেয়ারম্যান নাকভি। আজ (মঙ্গলবার) এক বিজ্ঞপ্তিতে পিসিবি নিশ্চিত করেছে, আগামী তিন বছরের জন্য চেয়ারম্যানের পদ সামলাবেন পাঞ্জাব প্রদেশের অন্তর্বর্তীকালীন মুখ্যমন্ত্রী।

এতদিন পিসিবির অন্তর্বর্তীকালীন চেয়ারম্যানের দায়িত্বে ছিলেন খাওয়ার শাহ। একই সঙ্গে পিসিবির নির্বাচন কমিশনের পদে থাকায় তার দায়িত্ব ছিল স্থায়ী চেয়ারম্যান খুঁজে বের করা। মঙ্গলবার লাহোরের জাতীয় ক্রিকেট একাডেমিতে বৈঠক ডেকে নতুন চেয়ারম্যানের নাম চূড়ান্ত করেছেন খাওয়ার। বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন নাকভি।

পিসিবির ৩৭তম চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পেয়ে নাকভি বলেছেন, “সর্বসম্মতিক্রমে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আমি আনন্দিত। আমি ক্রিকেটকে এগিয়ে নিতে ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রশাসনে পেশাদারিত্ব আনতে কাজ করে যাব।”

নাকভি এখনও পাকিস্তানের সবচেয়ে বড় প্রদেশ পাঞ্জাবের অন্তর্বর্তীকালীন মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্বে আছেন। এটির সঙ্গে এখন পিসিবি চেয়ারম্যানের পদও সামলাবেন। যদিও অন্তর্বর্তী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তার দায়িত্বের সময়সীমা এরইমধ্যে পেরিয়ে গেছে। পাকিস্তানের সংবিধান অনুযায়ী, নির্বাচন আয়োজনের জন্য একজন অন্তর্বর্তীকালীন মুখ্যমন্ত্রী সর্বোচ্চ তিন মাস দায়িত্বে থাকতে পারবেন। কিন্তু গত বছরের জানুয়ারিতে এই পদে বসে এক বছরের বেশি সময় পার করেছে নাকভি। অবশ্য খুব বেশি দিন হয়তো আর থাকার সুযো্গ নেই। কারণ সামনের সপ্তাহে পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের মাধ্যমে তার মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে।

রাজনৈতিক ময়দানে মুখ্যমন্ত্রীর ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে নাকভিকে। তবে এর আগে তার পরিচয় ছিল মিডিয়াকর্মী। যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ মাধ্যম সিএনএন-এ প্রডিউসার হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে তার। পরে পাকিস্তানে ফিরে এসে সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে সংবাদ মাধ্যমটির দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক প্রধানের দায়িত্ব নেন। নিউজ মিডিয়াতেই স্থায়ী হয়ে গড়ে তোলেন সিটি মিডিয়া গ্রুপ। প্রতিষ্ঠানটির ছয়টি টিভি চ্যানেলের পাশাপাশি আছে একটি পত্রিকা।

যদিও ক্রিকেট প্রশাসনে কাজ করার কোনও অভিজ্ঞতা নেই নাকভির। অবশ্য বিষয়টি পাকিস্তান ক্রিকেটে নতুন নয়। অন্তত গত ১০ বছরে চোখ রাখলে সেটিই ফুটে ওঠে। নাজাম শেঠি কিংবা জাকা আশরাফ কারোরই ক্রিকেটের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা ছিল না। অথচ বসেছিলেন পাকিস্তান ক্রিকেটের সর্বোচ্চ চেয়ারে। এহসান মানি ও রমিজ রাজার বিষয়টি অবশ্য ভিন্ন।

গত মাসে পিসিবির অন্তর্বর্তীকালীন চেয়ারম্যানের পদ থেকে জাকা আশরাফ সরে দাঁড়ানোর পর নাকভিকেই ভাবা হচ্ছিল নতুন প্রধান। শেষ পর্যন্ত সেটিই হলো। দায়িত্ব নেওয়ার পর তার প্রথম মিশন সামনের পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। এছাড়া পাকিস্তানের মাটিতে টুর্নামেন্ট আয়োজনের চ্যালেঞ্জ তো থাকছেই!

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist