Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

মির্জা ফখরুল থাকলে ভালো জমতো : কাদের

প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলার মামলাই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের জন্য অসুবিধার কারণ হয়ে গেছে বলে মনে করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার ঢাকার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক বিফ্রিংয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় রাজনৈতিক অঙ্গনে মির্জা ফখরুল থাকলে ‘ভালো জমতো’ বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

মির্জা ফখরুলের জামিনের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, “আমি যতদূর জানি, অনেকগুলো মামলায় মির্জা ফখরুলের জামিন হয়ে গেছে। কিন্তু প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলার ঘটনাটা খুবই স্পর্শকাতর, বিচার বিভাগের জন্যও বিষয়টি স্পর্শকাতর। ওই মামলাতেই একটু অসুবিধা হয়ে গেছে তার। এখন জামিন হয়নি, হয়তো একসময় পেয়ে যাবেন।”

এ সময় রাজনৈতিক অঙ্গনে মির্জা ফখরুল ইসলামের অনুপস্থিতির বিষয়ে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “মির্জা ফখরুল থাকলে ভালো জমতো। তার অনুপস্থিতিতে বিএনপির অনেক নেতা অনেক রকম কথা বলছেন। একবার রুহুল কবীর রিজভী এক কথা বলছেন, আরেকবার মঈন খান আরেক কথা বলছেন। কিন্তু কোনটা দলের কথা বোঝা যাচ্ছে না। মির্জা ফখরুল বললে আমরা ধরে নিতে পারতাম সেটা বিএনপির কথা।”

নির্বাচনে অংশ না নিয়ে বিএনপি যে ভুল করেছে, তার খেসারত দলটিকে আরও অনেকদিন দিতে হবে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, “গণতন্ত্রের যে ‘ট্রু ফর্ম’ আমরা সেটা পুরোপুরি মেনে চলি। আমাদের দেশে ইলেকশন হয়েছে, বিরোধীদল আসেনি। কিন্তু আমরা নির্বাচন ফেয়ার করেছি। নির্বাচনে চোখে পড়ার মতো কোনও সহিংসতা-সংঘর্ষ হয়নি। স্বাধীনতার পর যতগুলো ভালো নির্বাচন হয়েছে, তার মধ্যে আছে এই নির্বাচনও।”

আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভার এজেন্ডার বিষয়ে জানতে চাইলে দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “ইলেকশন ম্যানিফেস্টো বাস্তবায়নে আমাদের দলের সুদৃঢ় ঐক্য দরকার। গত নির্বাচনটা সুষ্ঠু হয়েছে। দলের অভ্যন্তরে যে অন্তর্কলহ, দ্বন্দ্ব আছে, এসব মিটিয়ে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমাদের উপজেলা নির্বাচন, মেয়র নির্বাচনে যেতে হবে। এসব নির্বাচনে যেন কোনও প্রকার সংঘাত সৃষ্টি না হয় সে ব্যাপারে ঐক্যবদ্ধ থাকার নির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist