Beta
বুধবার, ২২ মে, ২০২৪
Beta
বুধবার, ২২ মে, ২০২৪

চাকরিতে অবসরের বয়স বাড়ানোর ভাবনা পাকিস্তানে

সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী। ছবি: জিও টিভি।
সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী। ছবি: জিও টিভি।
Picture of সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

দ্রুত বেড়ে চলা পেনশনের অর্থ পরিশোধের চাপ কমাতে চাকরিতে অবসরের বয়স বাড়ানোর কথা ভাবছে পাকিস্তান।

আগামী অর্থবছরের বাজেট তৈরি এবং আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) একটি মিশনের সফরের আগে দেশটির অর্থমন্ত্রী মুহাম্মদ আওরঙ্গজেব এমন পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন বলে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে আওরঙ্গজেব বলেন, নতুন বেইল আউট বা অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ঋণ কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করতে আগামী ১০ দিনের মধ্যে একটি আইএমএফ মিশন পাকিস্তানে আসতে পারে।

গত মাসেই দেশটিতে ৩ বিলিয়ন ডলারের একটি স্বল্পমেয়াদি পুনরুদ্ধার ঋণ কর্মসূচি শেষ হয়েছে। ওই ঋণ নিয়ে পাকিস্তান তাদের কিছু বিদেশি ঋণ শোধ করে আপাতত দেউলিয়াত্ব থেকে রক্ষা পেয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরিফের সরকার একটি নতুন দীর্ঘমেয়াদি অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ঋণ কর্মসূচিতে আগ্রহী।

পেনশনের অর্থ পরিশোধকে ‘বড় দায়’ উল্লেখ করে পাকিস্তানের অর্থমন্ত্রী বলেন, “পেনশন খরচ নিয়ন্ত্রণে আনতে অবিলম্বে পদক্ষেপ নিতে হবে।” তিনি উন্নয়ন বহির্ভূত ব্যয় কমানোর ওপরও জোর দেন।

পাকিস্তানে বর্তামানে চাকরি থেকে অবসরের বয়স ৬০ বছর। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “বয়স এখন শুধু একটি সংখ্যা। ষাট হল নতুন ৪০।”

দেশটির আইনমন্ত্রী আজম নাজির তারার বলেছেন, পেনশন ব্যবস্থা সংস্কারের জন্য একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বাজেট তৈরির সময় তহবিলবিহীন পেনশনের দায় এবং পেনশন ব্যয় বৃদ্ধি পাকিস্তান সরকারের জন্য ক্রমবর্ধমান একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পাকিস্তান চলমান ব্যয় হিসেবে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের বেতন ভাতা ও পেনশনের জন্য ৮০১ বিলিয়ন রুপি (২.৮৮ বিলিয়ন ডলার) বাজেট বরাদ্দ করেছিল, যা গত অর্থবছরের চেয়ে ৩১ শতাংশ বেশি। গত বছর এই খাতে বাজেট ছিল ৬০৯ বিলিয়ন রুপি (২.১৯ বিলিয়ন ডলার)।

পাকিস্তানের আর্থিক বছর জুলাই থেকে জুন পর্যন্ত। ২০২৫ অর্থবছরের বাজেট আগামী ৩০ জুনের আগে পেশ করতে হবে, যা শেহবাজ শরিফের নতুন সরকারের প্রথম বাজেট।

গত রবিবার আইএমএফ বলেছে, “সমস্ত পাকিস্তানিদের কল্যাণের জন্য একটি সম্ভাব্য নতুন কর্মসূচির অধীনে ২০২৫ অর্থবছরের বাজেট, নীতি ও সংস্কার নিয়ে আলোচনা করতে মে মাসে একটি মিশন পাকিস্তান সফর করবে।”

তবে আইএমএফ ও অর্থমন্ত্রী সফরের তারিখ বা কর্মসূচির আকার ও সময়কাল উল্লেখ করেননি।

অর্থমন্ত্রী আরও জানান, ইসলামাবাদ জলবায়ু অর্থায়ন নিয়েও আইএমএফের সঙ্গে আলোচনা করবে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত