Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

রেকর্ড গড়েই জয়ে ফিরল পাকিস্তান

অবশেষে জয়ের দেখা পেয়েছে পাকিস্তান। ছবি: টুইটার

জিততেই ভুলে গিয়েছিল পাকিস্তান। বিশ্বকাপের পর থেকে যে হেরেই চলছিল! ভারতের টুর্নামেন্টে ৪ নভেম্বর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ জয় পেয়েছিল তারা। এরপর থেকে শুধুই হার। অবশেষে জয়ের দেখা পেল পাকিস্তান। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ টি-টোয়েন্টি ৪২ রানে জিতে নিয়েছে শাহীন শাহ আফ্রিদিরা।

সব ফরম্যাট মিলিয়ে টানা আট ম্যাচ হারের পর যে জয়টি পেয়েছে পাকিস্তান, সেটি আবার রেকর্ডগড়া। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৩৪ রান করেছিল পাকিস্তান। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে সবচেয়ে কম রান করে জয় পাওয়া রেকর্ড এখন এটিই। কিউইদের ১৭.২ ওভারে অলআউট করেছে মাত্র ৯২ রানে।

এই ম্যাচের আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেই সবশেষ জয় পেয়েছিল পাকিস্তান। এরপর বিশ্বকাপের রবিন রাউন্ডের শেষ ম্যাচে হারে ইংল্যান্ডের কাছে।

বিশ্বকাপ শেষে পাকিস্তানের প্রথম মিশন ছিল অস্ট্রেলিয়া। তাসমান পাড়ের দেশটির বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। নতুন অধিনায়ক শান মাসুদের নেতৃত্বে হোয়াইটওয়াশ হয় তারা। এরপর যায় নিউজিল্যান্ডে। পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম চার ম্যাচেই হারে। সব মিলিয়ে টানা ৮ ম্যাচ হারের পর ক্রাইস্টচার্চে জয়ের মুখ দেখল পাকিস্তান।

ক্রাইস্টচার্চের শেষ ম্যাচে ছিল হোয়াইটওয়াশের চোখরাঙানি। অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সিরিজের পর নিউজিল্যান্ডের টি-টোয়েন্টিতেও একই লজ্জায় পড়ার সামনে ছিল পাকিস্তান। তবে স্পিনারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ৪-১ ব্যবধানে শেষ করেছে সিরিজ।

বল হাতে ইফতিখার আহমেদ ছিলেন সবচেয়ে উজ্জ্বল। ৪ ওভারে মাত্র ২৪ রান দিয়ে তার শিকার ৩ উইকেট। টিম সেইফার্টের (১৯) পর তার শিকার ম্যাট হেনরি (১) ও ইশ সোধি (১)। ফলে ম্যাচসেরার পুরস্কারও জিতেছেন তিনি। তবে সবচেয়ে কার্যকরী ছিলেন মোহাম্মদ নওয়াজ। এই স্পিনার ওপেনার রাচিন রবীন্দ্রকে (১) শুরুতেই ফেরানোর পর তুলে নেন উইল ইয়ংয়ের (১২) উইকেট। পাকিস্তানের স্পিনারদের দাপটের মাঝে কিউইদের সর্বোচ্চ ইনিংস গ্লেন ফিলিপসের (২৬)।

শুধু স্পিনাররা নন, পেসার শাহীন আফ্রিদিও সফল। টি-টোয়েন্টিতে পাকিস্তানের নতুন অধিনায়ক সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ৩.২ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে তিনি তুলে নেন ২ উইকেট।

এর আগে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা পাকিস্তানের শুরু ভালো ছিল না। রানের খাতা খোলার আগেই ফিরে যান ওপেনার হাসিবউল্লাহ খান। ওই ধাক্কা কাটিয়ে আবারও দাঁড়িয়ে গিয়েছিলেন মোহাম্মদ রিজওয়ান। যদিও ৩৮ বলে ৩৮ রানে থামতে হয় তাকে। এছাড়া ফখর জামানের ৩৩, শাহেবজাদা ফারহানের ১৯ ও বাবর আজমের ১৩ রানে ভর দিয়ে ৮ উইকেটে ১৩৪ রান করতে পারে পাকিস্তান।

নিউজিল্যান্ডের চার বোলার- টিম সাউদি, ম্যাট হেনরি, লকি ফার্গুসন ও সোধি নিয়েছেন ২টি করে উইকেট।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist