Beta
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

পেলে-ম্যারাডোনার স্মৃতি বিজড়িত স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের উদ্বোধন

ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো ছিলেন সূচি ও ভেন্যু ঘোষনা অনুষ্ঠানে । ছবি : ফিফা

বিশ্বকাপ ফুটবলের ইতিহাসে মেক্সিকোর আজতেকা স্টেডিয়ামের আলাদা একটা জায়গা আছে। এই স্টেডিয়ামেই হয়েছে বিশ্বকাপের সবচেয়ে বেশি ম্যাচ।

১৯৭০-এর ফাইনালে ইতালিকে ৪-১ গোলে হারিয়েছিল পেলের ব্রাজিল। একমাত্র খেলোয়াড় হিসেবে পেলে জিতেছিলেন রেকর্ড তৃতীয় বিশ্বকাপ।

১৯৮৬ বিশ্বকাপে আজতেকাতেই হয়েছিল ইংল্যান্ডের বিপক্ষে কোয়ার্টার ফাইনালে ডিয়েগো ম্যারাডোনার সেই বিখ্যাত ‘হ্যান্ড অব গড’ গোল। সেবার ফাইনালে এই স্টেডিয়ামে ম্যারাডোনার জাদু ছোঁয়ায় বিশ্বকাপ জেতে আর্জেন্টিনা।  

আজতেকা স্টেডিয়ামে হবে বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচ।

দুটি বিশ্বকাপের ফাইনাল আয়োজন করা আজতেকা স্টেডিয়ামেই ১১ জুন হবে ২০২৬ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচ। সব মিলিয়ে এখানে হবে বিশ্বকাপের পাঁচটি ম্যাচ।

ফাইনাল মেটলাইফ স্টেডিয়ামে

বিশ্বকাপের ফাইনাল হবে ১৯ জুলাই যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সির মেটলাইফ স্টেডিয়ামে। গ্যালারিতে ফাইনাল উপভোগ করতে পারবেন ৮২ হাজার ৫০০ জন দর্শক।

ফিফা টিভির সরাসরি সম্প্রচারিত এক অনুষ্ঠানে আগামী বিশ্বকাপের বিভিন্ন পর্বের ম্যাচের সূচি ও ভেন্যু ঘোষণা করা হয়েছে সোমবার। সূচি ও ভেন্যু ঘোষণা অনুষ্ঠানে ছিলেন ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

সবচেয়ে বেশি ম্যাচ ডালাসে

কানাডা, মেক্সিকো ও যুক্তরাষ্ট্রে রেকর্ড ৪৮টি দেশের বিশ্বকাপের নকআউট পর্বে খেলবে ৩২ দল। ৩৯ দিনের বিশ্বকাপে ম্যাচ হবে ১০৪টি। ফাইনাল ছাড়াও মেটলাইফ স্টেডিয়ামে হবে গ্রুপ পর্বের পাঁচটি, শেষ ৩২ এর একটি আর শেষ ষোলোর একটি ম্যাচ। তবে ডালাসের এটিঅ্যান্ডটি স্টেডিয়ামে হবে সবচেয়ে বেশি ৯টি ম্যাচ।

২৭ জুন পর্যন্ত গ্রুপ পর্ব

বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব ১১ জুন শুরু হয়ে চলবে ২৭ জুন পর্যন্ত। শেষ ৩২ এর ম্যাচগুলো হবে ২৯ জুন থেকে ৩ জুলাই  পর্যন্ত। মেক্সিকোর গুয়াদালাহারা ও যুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়া ছাড়া অন্য ১৪টি ভেন্যুতে হবে এই রাউন্ডের ম্যাচগুলো। লস অ্যাঞ্জেলস ও ডালাসে হবে এই রাউন্ডের দুটি করে ম্যাচ।

সেমিফাইনাল ডালাস ও আটলান্টায়

শেষ ১৬ রাউন্ডের খেলা চলবে ৪ থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত। কোয়ার্টার ফাইনাল হবে ৯ থেকে ১১ জুলাই- লস অ্যাঞ্জেলস, কানসাস সিটি, মায়ামি ও বোস্টনে।

১৪ ও ১৫ জুলাই দুটি সেমিফাইনাল। দুটি ম্যাচই হবে যুক্তরাষ্ট্রের হবে ডালাস ও আটলান্টায়। ১৮ জুলাই তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ মায়ামিতে । সূচি নিয়ে ফিফার বিবৃতিতে বলা হয়েছে,‘‘বিশ্বকাপ তিন দেশে হলেও দরুন সূচি ও ভেন্যু নির্বাচনের জন্য সময়ের পাশাপাশি ভ্রমণও কমবে।’’

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist