Beta
রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪
Beta
রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪

৫ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে নিয়ে দুদকে চিঠি পিএসসির

SS-bpsc
Picture of প্রতিবেদক, সকাল সন্ধ্যা

প্রতিবেদক, সকাল সন্ধ্যা

নিয়োগ পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগে গ্রেপ্তার পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিষয়ে তদন্ত করতে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি)। বুধবার সন্ধ্যায় দুদক সচিব বরাবর এ চিঠি পাঠানো হয়েছে।

গত রবিবার ‘বিসিএস প্রিলি–লিখিতসহ গুরুত্বপূর্ণ ৩০ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস’ শিরোনামে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল টোয়েন্টিফোর একটি প্রতিবেদন প্রচার করে। সেখানে পিএসসির ক্যাডার ও নন–ক্যাডারসহ বিভিন্ন পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ তোলা হয়।

এরপর অভিযান চালিয়ে সংস্থাটির সাবেক গাড়িচালক আবেদ আলী জীবনসহ ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের মধ্যে পিএসসির উপ-পরিচালক মো. আবু জাফর ও জাহাঙ্গীর আলম, সহকারী পরিচালক মো. আলমগীর কবির এবং পিএসসির কর্মচারী খলিলুর রহমান ও সাজেদুল ইসলামও রয়েছেন, যাদের বরখাস্ত করা হয়েছে।

এ ঘটনায় করা মামলায় তাদের আসামি করা হয়েছে। বুধবার ওই পাঁচ কর্মকর্তা-কর্মচারীর বিষয়ে তদন্ত করতে দুদকে চিঠি দিয়েছে পিএসসি।

চিঠিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ রেলওয়ের উপ-সহকারী প্রকৌশলী পদের নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্নপত্র অবৈধ উপায়ে সংগ্রহ, পরীক্ষার পূর্বে প্রশ্নপত্র প্রকাশ এবং বিতরণ করে দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মচারী হিসেবে অপরাধ সংঘটনে জড়িত থাকার অভিযোগে কর্ম কমিশনের পাঁচজনসহ অন্যদের আসামি করে পল্টন থানার মামলা হয়েছে। তাদের মধ্যে পাঁচজন গ্রেপ্তার হয়ে জেলে আছেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, তাদের নিজ নামে ও তাদের পরিবারের সদস্যের নামে অসাধু উপায়ে অর্জিত ও তাদের জ্ঞাতআয়ের উৎসের সঙ্গে অসঙ্গতিপূর্ণ স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির দখলে রয়েছেন বা মালিকানা অর্জন করেছেন মর্মে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে এবং হচ্ছে।

তাই এসব অভিযোগ তদন্ত করে কমিশনকে অবহিত করতে অনুরোধ করেছে সংস্থাটি।

চিঠির বিষয়ে জানতে চাইলে পিএসসির জনসংযোগ কর্মকর্তা এস এম মতিউর রহমান বলেন, তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মাধ্যমে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের তথ্য আসতে থাকায় সেগুলোর অধিকতর তদন্ত ও তথ্য সংগ্রহের জন্য দুদকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। পিএসসি এসব বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি অবলম্বন করেছে।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত