Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

সচেতনতা বাড়াতে গিয়েও বিতর্কে পুনম পান্ডে

‘মারা যাওয়ার’ দুদিন আগেও পার্টি উপভোগ করতে দেখা গেছে ৩২ বছর বয়সী পুনম পান্ডেকে

পুনম পান্ডের নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে যখন তারই মৃত্যু সংবাদ আসে, তখন ধরে নিতে হবে হয় তার এই সোশাল মিডিয়া হ্যান্ডেলটি বেহাত হয়েছে; অথবা তিনি সত্যি সত্যিই মারা গেছেন।

গত ২ ফেব্রুয়ারি ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে কালো রঙের উপরে সাদা হরফে লেখা পোস্ট থেকে জানা গেল, জরায়ুমুখ ক্যান্সারে প্রাণ হারিয়েছেন এই ভারতীয় মডেল।

অথচ এর মোটে দুই দিন আগে পার্টি উপভোগ করতে দেখা গেছে ৩২ বছর বয়সী পুনমকে।

কেআরকে নামে পরিচিত ভোজপুরি সিনেমার তারকা কামাল রশিদ খান সেই ভিডিও শেয়ার করেন। ওই পোস্টে মন্তব্য ঘরে এসে সহাভূতির বদলে মৃত্যুর খবরটিকে বানোয়াট বলেন আরেক ভারতীয় অভিনেত্রী রোজলিন খান।

পুনম পান্ডের মৃত্যু সংবাদ নিয়ে রোজলিনের ভাষ্য ছিল, “খবরটা ভুয়া হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

“সার্ভিকাল ক্যান্সার রোগী শেষ পর্যায়ে … কেউই এমন করে বসে থেকে হাসতে পারবে না। মাত্রই আমার চিকিৎসকের সঙ্গে আলাপ করলাম। এই খবর তো আমার কিছুতেই বিশ্বাস হচ্ছে না।”

পুনম পান্ডের মৃত্যু সংবাদ কেন ‘বানানো’ বললেন রোজলিন খান?

নিজেও ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই করে চলা রোজলিন পরে নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে এ নিয়ে আরও কথা বলেন।

“পুনম পান্ডের মৃত্যু সংবাদ শুনে সকাল থেকে আমি ভীষণ ভেঙে পড়ি। এভাবে কেউ জরায়ুমুখ ক্যান্সারে মারা যেতে পারে না। তাকে একদম চমৎকার দেখাচ্ছিল। আর সে তো কখনও এসব নিয়ে সোশাল মিডিয়াতে মুখ খোলেনি।”

“আমি আমার অনকোলজিস্টের সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি আমাকে প্রশ্ন করলেন, ও কি শেষ স্টেজের রোগী ছিল? ওর কি কেমোথেরাপি হয়নি? নাকি কোনো চিকিৎসা না করেই মারা গেছে? … স্টেজ ফোর হলেও এখন চিকিৎসা সম্ভব। যদি পরিবার থেকে বলে যে চিকিৎসা ছাড়াই টার্মিনাল স্টেজ কাটছিল তাহলে আমি মেনে নিতে পারি। এটা অবিশ্বাস্য খবর … আমি নিজেও তো গত এক বছর ধরে ক্যান্সারের সঙ্গে লড়ে চলেছি।”

পুনম পান্ডের সাবেক স্বামীও মৃত্যু সংবাদে বিশ্বাস ও অবিশ্বাস নিয়ে শোক প্রকাশ করেন।

“আমি এখনও ধাতস্ত হতে পারিনি। এই খবর সত্যি হতে পারে না। আমি এসব বিশ্বাসও করতে চাই না। আমার মনের অবস্থা পরে গুছিয়ে জানাব। পুনমের জন্য সবাই প্রার্থনা করবেন। শোক প্রকাশের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ। তবে সবার কাছে আমার অনুরোধ, একটু যাচাই করে নিন। ঘটনা কী তা জানতে চান। কেন জানি মনে হচ্ছে কিছু একটা ঝামেলা রয়েছে এরমধ্যে।”

পুনম পান্ডের মৃত্যু সংবাদ সামনে আসার পর ২৪ ঘণ্টায় এনিয়ে এমন নানা প্রতিক্রিয়া ছড়িয়ে পড়ে।

রোজলিনের মত অনেকেই সপাটে বলেন, প্রচার পেতে পুনম পান্ডে নতুন ‘স্টান্টবাজি’ করছেন।   

তবে পুনম পান্ডের এমন তরুণ বয়সে মারা যাওয়ার খবর বিশ্বাস করে অনেকে দুঃখ প্রকাশও করেছেন।  এই তালিকায় আছেন বলিউডের কঙ্গনা রানাউত থেকে অনুপম খের। 

আবার পুনমের মৃত্যুতে হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন এমন কথা বলতেও ছাড়েননি অনেকে। তারপর এসব প্রতিক্রিয়াকে অমানবিক জানিয়ে পাল্টা প্রতিক্রিয়াও ছড়িয়েছে সোশাল মিডিয়াতে।

বিতর্ক জাগাতে পুনম পান্ডে বহুবার সফল হয়েছেন। এর আগে দুবার তিনি নগ্ন হবেন বলে ঘোষণা দিয়ে শোরগোল ফেলে দেন। ২০১১ সালে আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ ফাইনালের আগে আগে জানালেন, ভারত চ্যাম্পিয়ন হলে তিনি নগ্ন হবেন। ভারত সেবার কাপ পেয়েছিল ঠিকই; কিন্তু পুনম পান্ডে তার কথা থেকে সরে এসে বলেন, আইন অমান্য হয় এমন কিছু করতে চান না তিনি। সেই সঙ্গে তিনি মেনেও নেন, এভাবে সবার নজরে এসে আলোচিত হতে চেয়েছিলেন; যাকে বলে ‘পাবলিসিটি স্ট্যান্ট’।

তবে পরের বছর সেই পাবলিসিটি স্ট্যান্ট ঠিকই করেছিলেন এই তরুণী। আইপিএল আসরে কলকাতা নাইট রাইডার্স জিতে গেলে সামাজিক মাধ্যম এক্সে (ওই সময় টুইটার নাম ছিল) নিজেই নগ্ন ছবি ছেড়ে বলেন, “কথা মতো ছবি দিলাম।”

২০১৩ সালে পর্দায় অভিষেক হয়েছিল পুনম পান্ডের। হিন্দি ছবির পাশাপাশি দক্ষিণের সিনেমাতেও কাজ করেছেন। ছোট পর্দায় রিয়্যালিটি শো করেছেন।

যদিও অভিনয় গুণে নয়, সবসময় পোশাক ও বিতর্কিত কাণ্ড নিয়েই আলোচনায় থেকেছেন তিনি।  

প্রেমিক স্যাম বম্বেকে ২০২০ সালের ১ সেপ্টেম্বর বিয়ে করে ১২ দিনের মাথাতেই নির্যাতনের অভিযোগ এনে বিবাহ বিচ্ছেদের পথে হাঁটেন এই মডেল।

ওই বছর ভারতের গোয়ায় এক গ্রামে ভিডিও তৈরির সময় তার নামে অভিযোগ থানা পর্যন্ত গড়ায়; তাতে বলা হয়, গোয়াকে তিনি পর্ন এলাকা হিসেবে উপস্থাপন করছেন।

কেন মারা গেলেন পুনম পান্ডে?

সত্যিই কি পুনম পান্ডে মারা গেছেন?  স্রেফ আলোচনায় আসতে চেয়েই কি  ‘মৃত্যু’ বেছে নিলেন পুনম পান্ডে? এসব নিয়ে হাটে হাঁড়ি ভাঙলেন পুনম পান্ডে নিজেই।  

৩ ফেব্রুয়ারি পুনমের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে প্রকাশ পেল একটি ভিডিও। তাতে গাঢ় রঙের ফুলহাতা পোশাক, খোলা চুল আর নুড মেকআপে দেখা গেল পুনমকেই; তিনি বললেন, “আমি বেঁচে আছি।”

পুনমের মৃত্যুর খবরে যাদের সংশয় ছিল, তাই সত্যি প্রমাণ হলো অবশেষে; পুরো ঘটনাটি নিছক পরিকল্পিত রটনা। কিন্তু জরায়ুমুখ ক্যান্সারে মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে কেন আলোচিত হতে চান এই তরুণী?

ভিডিও বার্তায় পুনম খোলাসা করলেন সে কথা।

“আমি সার্ভিকাল ক্যান্সারে মারা যায়নি। আমি সেই শত থেকে হাজারো নারী কথা বলতে পারছি না, যারা এই ক্যান্সারে ভুগে মারা গেছে। … আমি সবাইকে একটা কথা বলতে চাই। জরায়ুমুখ ক্যান্সার আমাকে শেষ করতে পারেনি। কিন্তু এই অসুখ নিয়ে ধারণা না থাকার কারণে হাজার হাজার নারীর জীবন শেষ হয়ে গেছে।”

এইচপিভি টিকা নিয়ে জরায়ুমুখ ক্যান্সার রুখে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে পুনম বলেন, “চলুন, সবাই মিলে  এই ঘাতক রোগ নির্মূলে কাজ করি।”

‘ডেথ টু সার্ভিকাল ক্যান্সার’ হ্যাশট্যাগের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন তিনি। সেই সঙ্গে জানান দেন, পুনম পান্ডে ইজ এলাইভ ডটকম ইউআরএল নিয়ে।

মৃত্যু নাটকের অবসান ঘটিয়ে জীবিত পুনমের নামে এই ওয়েবসাইটে রয়েছে জরায়ুমুখ ক্যান্সার নিয়ে জরুরি সব তথ্য। আছে পরীক্ষা ও টিকা থেকে জরায়ুমুখ ক্যান্সার জয়ী নারীর কথাও।

পুনম পান্ডে জরায়ুমুখ ক্যান্সার রোধে এভাবে সচেতনতার বার্তা দিতে চাইছেন। উদ্দেশ্য সাধুবাদ পাওয়ার মতো হলেও পুরো ঘটনাটি যেভাবে ঘটেছে তা অনেকের কাছেই  ‘সস্তা’ ঠেকেছে।

ফলে ভালো কিছু করতে চাইলেও সমালোচনা  পিছু ছাড়লো না পুনমের।

এই তারকার বন্ধুরাও বিষয়টি সহজভাবে নিতে পারেননি। অনেকেই বলেছেন, এমন ‘অসংবেদী কৌতুকের’ জন্য পুনমকে কখনই ক্ষমা করবেন না তারা।

আরেক মডেল কুশা কাপিলা বলেন, “এই পরিকল্পনার পেছনে কোনো এজেন্সি আছে।”

একজন এক্স ব্যবহারকারীর মন্তব্য উল্লেখ করেছে হিন্দুস্তান টাইমস।

তিনি লিখেছেন, “যেমনটা ভেবেছিলাম! সবটাই আলোচনায় আসার ধান্দা। যারা বারবার সন্দেহ প্রকাশ করেছিল, তারাই তো ঠিক দেখা যাচ্ছে। ”

এক্সে আরেকজন লিখেছেন, “ভারতে সবচেয়ে বড় ধান্দাবাজ হচ্ছে পুনম পান্ডে।”

এতসব সমালোচনার মধ্যেও কেউ কেউ খানিক আশার আলো দেখছেন।

জীবিত পুনমের পোস্টে কেউ লিখেছেন, “এই খবরের পর হয়ত অনেকেই টিকা নিতে যাবে।”

আরেকজন পুনমকে সাধুবাদ দিয়ে লিখেছেন, “আপনি কোনো ভুল করেননি পুনমজি। এই ক্যান্সার নিয়ে মানুষের চোখ খুলে গেল এবার।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist