Beta
শনিবার, ২ মার্চ, ২০২৪

নিজেকে জাপার চেয়ারম্যান ঘোষণা করলেন রওশন

মতবিনিময় সভায় নিজেকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন রওশন এরশাদ। ছবি : সকাল সন্ধ্যা

জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ নিজেকে দলটির চেয়ারম্যান ঘোষণা করেছেন। একইসঙ্গে জাপার চেয়ারম্যান জিএম কাদের ও মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নুকে তাদের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

রবিবার ঢাকার গুলশানে নিজের বাসভবনে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এসব সিদ্ধান্তের কথা জানান জাপার প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত এইচ এম এরশাদের সহধর্মিণী রওশন এরশাদ।

তিনি বলেন, “সংকট নিরসনে পার্টির নেতাকর্মীদের অনুরোধে এবং পার্টির গঠনতন্ত্রের ২০ এর ১ ধারায় বর্ণিত ক্ষমতাবলে আমি পার্টির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে জিএম কাদের ও মহাসচিব মজিবুল হক চুন্নুকে অব্যাহতি প্রদান করলাম।”

রওশন বলেন, “নেতাকর্মীদের অনুরোধে আমি পার্টির চেয়াম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করলাম। পরবর্তী সম্মেলন না হওয়া পর্যন্ত আমি কাজী মো. মামুনুর রশিদকে মহাসচিবের দায়িত্ব প্রদান করলাম। তিনি সার্বিকভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন।”

দল থেকে অব্যাহতি দেওয়া এবং পদত্যাগ করা নেতারা নিজ নিজ পদে বহাল থাকবেন জানিয়ে একাদশ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, “পার্টির অন্যান্য পদ-পদবী স্ব স্ব অবস্থায় বহাল থাকবে এবং পার্টির যে সকল নেতাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে কিংবা বহিষ্কার করা হয়েছে এবং যাদের পার্টির কমিটির বাহিরে রাখা হয়েছিল তাদের পূর্বেকার স্ব-পদে পুনর্বহাল করা হবে।”

শিগগিরই জাতীয় পার্টির জাতীয় সম্মেলন আহ্বান করা হবে বলেও এ সময় জানান তিনি।

সভায় সভাপতিত্ব করেন জাপা থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত প্রেসিডিয়াম সদস্য শফিকুল ইসলাম সেন্টু। স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেন, “আজকের দিনটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আজকে আমাদের দলের যে অবস্থা, নেতাকর্মীদের দাবি— দলের আবর্জনা ফেলে দিন। আবর্জনা পরিষ্কার করে আপনি (রওশন এরশাদ) জাতীয় পার্টির হাল ধরবেন। জাতীয় পার্টর নেতাকর্মীরা জিএম কাদের, চুন্নুর নেতৃত্বে দল করবেন না, রওশন এরশাদের নেতৃত্বে দল করবেন। আজকে থেকেই আমরা রওশন এরশাদকে নেতৃত্বে দেখতে চাই।”

জাতীয় পার্টির বহিষ্কৃত ভাইস প্রেসিডেন্ট ইয়াহ ইয়া চৌধুরী বলেন, “এই দলের প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। ৭ জানুয়ারির নির্বাচনের পর দলের যে অবস্থা তাতে আমরা চাই আবারও আপনি (রওশন) দলের হাল ধরেন।”

অব্যাহতি পাওয়া আরেক প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায় বলেন, “আজ জাতীয় পার্টি আবারও সঙ্কটে পড়েছে। আপনি জাতীয় পার্টিকে ঐক্যবদ্ধ করে সারাদেশের নেতাকর্মীদের প্রাণের জাতীয় পার্টিকে আবারও সুসংগঠিত করবেন। এটাই আমাদের প্রত্যাশা।”

৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটের দিন থেকেই জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও মহাসচিবের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ তুলতে শুরু করেন নেতাকর্মীরা। নির্বাচন জয়ী জাপার সংসদ সদস্যরা যেদিন শপথ নেন সেদিনই জিএম কাদের ও মুজিবুল হক চুন্নুকে নিজ নিজ পদ থেকে অব্যাহতি নিতে ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটামও দেওয়া হয়। এর রেশ ধরে ১৫ জানুয়ারি বহিষ্কার করা হয় চার নেতাকে, বিলুপ্ত করা হয় ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটি।

এরপর গত ২৫ জানুয়ারি বহিষ্কৃত নেতাদের মধ্যে ঢাকা মহানগরের উত্তরের সাবেক সভাপতি শফিকুল ইসলাম সেন্টু ও প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভ রায়ের নেতৃত্বে ঢাকা মহানগরের ১০ থানার ৬৭১ জন নেতা পদত্যাগ করেন।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist