Beta
শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪

রাসেল-ঝড়ে উড়ে গেল অস্ট্রেলিয়া

আগের ম্যাচেও ঝড় উঠেছিল তার ব্যাটে। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জেতাতে পারেননি আন্দ্রে রাসেল। সেই আক্ষেপ তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে মেটালেন তিনি। ব্যাট হাতে তাণ্ডব চালিয়ে গুঁড়িয়ে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়াকে। শেরফান রাদারফোর্ডের সঙ্গে গড়েছেন তৃতীয় উইকেটে রেকর্ড জুটি। তাতে হোয়াইটওয়াশ এড়িয়েছে সফরকারীরা। শেষ টি-টোয়েন্টি ওয়েস্ট ইন্ডিজ জিতেছে ৩৭ রানে।

মঙ্গলবার পার্থ স্টেডিয়ামে আক্ষরিক অর্থেই ঝড় তুলেছিলেন রাসেল। ২৯ বলে খেলা তার ৭১ রানের টর্নেডো ইনিংসে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ২২০ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফর্মের তুঙ্গে থাকা ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যাটে দারুণ শুরু পাওয়ায় জয়ের আশা জাগে অস্ট্রেলিয়ার। তবে রোস্টন চেসের চমৎকার বোলিংয়ে ৫ উইকেটে ১৮৩ রানে শেষ হয় স্বাগতিকদের ইনিংস। তারপরও তিন ম্যাচের সিরিজ ২-১ ব্যবধানে জিতেছে অস্ট্রেলিয়া।

টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা ওয়েস্ট ইন্ডিজের শুরুটা অবশ্য ভালো ছিল না। ১৭ রানে হারায় টপ অর্ডারের তিন ব্যাটারকে। তবে মিডল ও লোয়ার অর্ডার ব্যাটারদের দাপটে ম্যাচে ফেরে ক্যারিবিয়ানরা। চেস ২০ বলে ৩৭ ও অধিনায়ক রোভম্যান পাওয়েল ১৪ বলে ২১ রান করে আউট হওয়ার পর শুরু রাসেল-রাদারফোর্ডের তাণ্ডব।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে তারা যোগ করেন ১৩৯ রান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তো বটেই, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটেই ষষ্ঠ উইকেটে সর্বোচ্চ রানের জুটির রেকর্ড গড়েছেন রাসেল-রাদারফোর্ড। চার-ছক্কার বৃষ্টিতে ভিজিয়েছেন ক্রিকেটপ্রেমীদের। রাসেল তার ২৯ বলের ইনিংসে মেরেছেন ৪ বাউন্ডারি ও ৭ ছক্কা। অন্যদিকে ৪০ বলে অপরাজিত ৬৭ রানের ইনিংসটি রাদারফোর্ড সাজিয়েছেন ৫ বাউন্ডারি ও ৫ ছক্কায়।

তাদের দাপটের দিনে চরম লজ্জায় ডুবতে হয়েছে অ্যাডাম জাম্পাকে। এই লেগ স্পিনার ৪ ওভারে খরচ করেছেন ৬৫ রান। অস্ট্রেলিয়ান বোলার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে খরুচে এখন তিনিই। আগের রেকর্ডটি ছিল অ্যান্ড্রু টাইয়ের ৬৪ রান।

২২১ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে অস্ট্রেলিয়া পায় দারুণ শুরু। উদ্বোধনী জুটিতে মিচেল মার্শ ও ওয়ার্নার যোগ করেন ৬৮ রান। তবে মার্শ ১৭ রান করে আউট হলে ঘটে ছন্দপতন। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেটে হারিয়েছে স্বাগতিকরা। যদিও ওয়ার্নার খেলেছেন আরেকটি চমৎকার ইনিংস। ৪৯ বলে তার ব্যাট থেকে আসে ৮১ রান।

তবে বাঁহাতি ওপেনারের ইনিংসটি কাজে আসেনি। শেষ দিকে টিম ডেভিড ঝড় তুললেও হার এড়াতে পারেননি। এই ব্যাটার ১৯ বলে ২ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় অপরাজিত থাকেন ৪১ রানে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সবচেয়ে সফল বোলার চেস। এই স্পিনার ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। তবে ম্যাচসেরা হয়েছেন দানবীয় ইনিংস খেলা রাসেল। আর সিরিজসেরা ওয়ার্নার।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist