Beta
শুক্রবার, ১ মার্চ, ২০২৪

কয়েক মাস আগেই ডিভোর্স হয়েছে সানিয়া ও শোয়েবের

সানিয়া মির্জা ও শোয়েব মালিক। ছবি: টুইটার

আবার বিয়ে করেছেন শোয়েব মালিক। পাকিস্তানি অভিনেত্রী সানা জাভেদের সঙ্গে নতুন জীবন শুরুর খবর নিজেই দিয়েছেন এই ক্রিকেটার। তার বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই কৌতূহল তৈরি হয়, সানিয়া মির্জার সঙ্গে কি ডিভোর্স হয়েছে শোয়েবের? অবশেষে জানা গেল আসল খবর।

শোয়েব মালিকের বিয়ের খবরের ২২ ঘণ্টা পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সানিয়ার পরিবারের দেওয়া বিবৃতিতে নিশ্চিত করা হয়েছে ডিভোর্সের খবর। কয়েক মাস আগেই শোয়েবের সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে ভারতীয় টেনিস তারকার।

সানিয়ার পরিবার ও টিম সানিয়ার নামে দেওয়া হয়েছে এই বিবৃতি। সানিয়ার ছোট বোন আনাম মির্জার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে দেওয়া বিবৃতির শুরুতে বলা হয়েছে, “সানিয়া সবসময়ই তার ব্যক্তিগত জীবন জনসাধারণের চোখের আড়ালে রাখার চেষ্টা করেছে। যাইহোক, আজ আমাদের এটা জানানোর প্রয়োজন হয়েছে যে, কয়েক মাস আগেই শোয়েব ও তার (সানিয়া) ডিভোর্স হয়ে গিয়েছে। সে শোয়েবের নতুন যাত্রায় শুভকামনা জানিয়েছে।”

বিবৃতির শেষ অংশে লেখা হয়েছে, “তার (সানিয়া) জীবনের এই স্পর্শকাতর সময়ে আমরা তার সব ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের অনুরোধ করছি, সানিয়ার গোপনীয়তার স্বার্থে যেকোনও জল্পনা থেকে যেন সবাই বিরত থাকে।”

শোয়েব মালিক ও সানিয়া মির্জার ডিভোর্সের গুঞ্জন চলছিল অনেকদিন। ক্রীড়াঙ্গনের দুই তারকার ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ার খবরও বাতাসে ভাসছিল। এইসব গুঞ্জনের মাঝেই আবার বিয়ে করেছেন শোয়েব। শনিবার (২০ জানুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিয়ের খবর জানান এই অলরাউন্ডার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শোয়েব ও সানা দুজনই ছবি পোস্ট করেন। বিয়ের সাজে দুজনই। ক্যাপশনে লিখেন, “আলহামদুলিল্লাহ। নিশ্চয়ই তোমাদের জোড়ায় জোড়ায় সৃষ্টি করা হয়েছে।”

এর আগে ২০১০ সালে বিয়ে হয়েছিল শোয়েব-সানিয়ার। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়ে তাদের প্রথম আলাপ। সেসময় পাকিস্তানের হয়ে অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে গিয়েছিলেন শোয়েব, আর সানিয়া গিয়েছিলেন ব্রিসবেন ইন্টারন্যাশনাল খেলতে। এরপর সম্পর্ক গভীর হয় তাদের, যেটি তারা বিয়েতে রূপ দেন ২০১০ সালে। তাদের ইজহান মির্জা মালিক নামের এক ছেলে সন্তানও রয়েছে।

শোয়েব পাকিস্তানি সানিয়া ভারতীয়, তবে দেশ দুটির রাজনৈতিক বৈরিতা কখনও তাদের সম্পর্কে প্রভাব ফেলেনি। লম্বা সময় সুখেই ছিলেন দুজন। তবে গত বছর থেকে শুরু হয় তাদের সম্পর্কে ফাটল ধরার গুঞ্জন। আর কিছুদিন হলো শুরু হয় ডিভোর্সের গুজব। শেষ পর্যন্ত শোয়েবের বিয়ের খবরের পর সানিয়ার সঙ্গে তার বিচ্ছেদের বিষয়টিও নিশ্চিত হলো।

সানিয়া মির্জার পোস্ট

আজ (রবিবার) সানিয়ার পরিবার থেকে ডিভোর্সের খবর নিশ্চিত করা হলেও গত বুধবারই একটি পোস্টে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন ভারতীয় টেনিস তারকা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভারতের টেনিস তারকা লিখেছিলেন, “বিয়ে কঠিন। বিচ্ছেদও কঠিন। কঠিনটাকে বেছে নিন। স্থূলতা ভালো নয়। ফিট থাকাও কঠিন। কঠিনটা বেছে নিন। ঋণের মধ্যে থাকা কঠিন। অর্থনৈতিক শৃঙ্খলা বজায় রাখাও কঠিন। কঠিনটা বেছে নিন। যোগাযোগ রাখা কঠিন। যোগাযোগ না রাখাও কঠিন। কঠিনটাকে বেছে নিন। জীবন কখনও সহজ নয়। এটা সবসময় কঠিন। কিন্তু আপনি আপনার কঠিনটা বেছে নিতে পারেন। বেছে নিন।”

এই পোস্টের দুই দিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে শোয়েবের সব ছবি ‘ডিলিট’ করেন সানিয়া। যে একটি ছবি আছে তাদের, সেখানে তাদের সঙ্গে রয়েছে ছেলে ইজহান।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist