Beta
সোমবার, ৪ মার্চ, ২০২৪

মুন্নার স্মৃতি ধরে রাখার তাগিদ সানজিদার

বাংলাদেশ জাতীয় দলের উইঙ্গার সানজিদা আক্তার এ মুহূর্তে আছেন কলকাতায়। খেলছেন ভারতের নারী ফুটবল লিগে ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের জার্সিতে।

যে জার্সিতে ১৯৯১ সালে খেলেছিলেন বাংলাদেশের কিংবদন্তি ফুটবলার মোনেম মুন্না। কলকাতা লিগে ইস্টবেঙ্গলকে যিনি চ্যাম্পিয়ন করেছিলেন।

ইস্টবেঙ্গলে পা রেখেই গত মাসে একবার মুন্নাকে স্মরণ করেছিলেন সানজিদা । ক্লাবের দেওয়ালে টানানো মুন্নার ছবির সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলেছিলেন।

সোমবার মুন্নার ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকী। জাতীয় দলের এ তারকা ফুটবলারের চলে যাওয়ার দিনে আবারও তাকে স্মরণ করলেন সানজিদা। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে সোমবার লিখেছেন,‘‘মাত্র ২০ বছর বয়সে জাতীয় দলে অভিষেক হয়ে সাফ রানার্স আপ সহ দেশের হয়ে প্রথম আন্তর্জাতিক শিরোপা অর্জন করেছিলেন। রেকর্ড ব্রেকিং ট্রান্সফার, ফুটবল মাঠ থেকে বিজ্ঞাপন, দেশের বাইরের ক্লাবে এসে সুখ্যাতি অর্জন সবই করেছেন তিনি।’’

মোনেম মুন্নাকে আজও ভোলেনি ইস্টবেঙ্গল। তাদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুন্নাকে স্মরণ সেটাই প্রমাণ করে। ছবি: ইস্টবেঙ্গল ফেইসবুক পেজ।

সানজিদা আরও যোগ করেন, “অল্পদিনের মধ্যেই এতকিছু অর্জন করে মাত্র ৩১ বছর বয়সে ফুটবল কে বিদায় জানান এবং ৩৮ বছর বয়সে দুনিয়াকে বিদায় জানান। খুব দ্রুত চলে যাবেন বলেই হয়ত সুখ্যাতি, জনপ্রিয়তা, ট্রফি সহ সবকিছু অর্জন করতে বড্ড তাড়াহুড়ো ছিল উনার।”

ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে মুন্নাকে দেখার পর গর্বিত হয়েছিলেন সানজিদা। সে প্রসঙ্গ উল্লেখ করে লিখেছেন, “ইস্টবেঙ্গল ক্লাবে এসে যখন উনার ছবি দেখেছিলাম, তখন খুব গর্বিত হয়েছি। আমার অগ্রজ, আমাদের হিরো, তিনি একান্তই আমাদের। দেশের এরকম সূর্যসন্তানদের স্মৃতি যথাযথভাবে ধরে রাখা এবং অক্ষুণ্ন রাখার ব্যবস্থা থাকা উচিত বলে মনে করি। তাহলে এই কিংবদন্তি হয়ত কিছুটা হলেও এতে শান্তি পাবেন।”

এ প্রজন্মের অনেকে চেনে না মুন্নাকে। সেটা উল্লেখ করে সানজিদা লেখেন, “অগ্রজদেরকে সম্মানিত করা এবং স্মরণ করার রীতি থেকে আমরা সরে গেলে, অদূর ভবিষ্যতে আমরাও পরবর্তী প্রজন্মের নিকট কিছু আশা করতে পারি না। আল্লাহতায়ালা, উনাকে জান্নাতবাসী করুন। আমিন।”

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত

Add New Playlist