Beta
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪
Beta
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪

মানুষের দেহে প্রথমবার শূকরের কিডনির সফল প্রতিস্থাপন

যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসকরা শনিবার শূকরের কিডনি মানুষের দেহে প্রতিস্থাপন করেন। ছবি: ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল
যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসকরা শনিবার শূকরের কিডনি মানুষের দেহে প্রতিস্থাপন করেন। ছবি: ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল
Picture of সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

সকাল সন্ধ্যা ডেস্ক

প্রথমবারের মতো মানুষের দেহে একটি শূকরের কিডনি সফলভাবে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালে বৃহস্পতিবার এই যুগান্তকারী ঘটনার জন্ম দেন চিকিৎসকরা।     

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৬২ বছর বয়সী এক রোগীর দেহে গত শনিবার চার ঘণ্টা অস্ত্রোপচার করে জিনগত পরিবর্তন ঘটানো একটি শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়।

ওই রোগীর নাম রিক স্লেম্যান। ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের পরিবহন দপ্তরের ব্যবস্থাপক তিনি।

স্লেম্যান দীর্ঘদিন ধরে কিডনি রোগী। গত বছর চিকিৎসকরা তাকে জানান, তার কিডনির অবস্থা ভালো নয়। যেকোনো সময় একেবারে অকেজো হয়ে পড়তে পারে। তাদের পরামর্শমতো নিজের দেহে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপনে রাজি হন তিনি।

ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অস্ত্রোপচারের পর স্লেম্যান সুস্থ হয়ে উঠছেন। দ্রুতই তিনি ঘরে ফিরতে পারবেন।

রিক স্লেম্যানের দেহে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপন করে দ্বিতীয়বারের মতো ইতিহাসে জায়গা করে নিল ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল। এর আগে ১৯৫৪ সালে ওই হাসপাতালেই প্রথম মানুষের কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়।

স্লেম্যানের দেহে যে শূকরের কিডনিটি প্রতিস্থাপন করা হয়েছে, তা বেশ কয়েক বছর কাজ করবে বলে আশাবাদী ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

তবে তারা এও স্বীকার করেছেন, পশু থেকে মানুষের দেহে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের অনেক বিষয় তাদের এখনও অজানা।

ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালের প্রতিস্থাপন কর্মসূচির সঙ্গে ১১ বছর ধরে যুক্ত স্লেম্যান। ২০১৮ সালেও একবার তার দেহে কিডনি প্রতিস্থাপন করা হয়। তবে সেটি মানুষের ছিল।

দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপে ভুগছেন স্লেম্যান। ২০১৮ সালে কিডনি প্রতিস্থাপনের পর প্রথম কয়েক বছর সুস্থ ছিলেন তিনি। পাঁচ বছর পর কিডনিটির কার্যকারিতা কমতে শুরু করে। ২০২৩ সালে ফের তাকে ডায়ালাইসিস শুরু করতে হয়।

রিক স্লেম্যানের দেহে প্রতিস্থাপনের জন্য বাক্স থেকে শূকরের কিডনি বের করছেন এক নার্স। ছবি: ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল

গত বছর চিকিৎসকরা যখন দেখলেন, স্লেম্যানের সেই প্রতিস্থাপিত কিডনির কার্যকারিতা শেষ পর্যায়ে আছে, তখন তারা তাকে শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপনের পরামর্শ দেন।       

স্লেম্যান বলেন, “চিকিৎসকদের পরামর্শকে আমি কেবল আমার বাঁচার একমাত্র পথ হিসেবেই দেখিনি। আমার মনে হয়েছিল, যাদের প্রতিস্থাপন ছাড়া উপায় নেই, আমি সফল হলে সেই হাজার হাজার মানুষও আশার আলো দেখবেন।” 

ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালে স্লেম্যানের অস্ত্রোপচারের সঙ্গে যুক্ত না থাকা চিকিৎসকরা জানান, শূকরের কিডনি মানুষের দেহে প্রতিস্থাপন চিকিৎসাবিজ্ঞানের এক গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক।

এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাস শহরের ইউটি সাউথওয়েস্টার্ন মেডিক্যাল সেন্টারের অঙ্গ প্রতিস্থাপন বিভাগের প্রধান ড. পারসিয়া ভেইজফি বলেন, “বছরের পর বছর ধরে কিডনি প্রতিস্থাপন নিয়ে কাজ করে যাওয়া ও পারস্পরিক সহযোগিতার পর অবশেষে সফলতার দেখা পাওয়া বিশাল অগ্রগতি। অঙ্গ প্রতিস্থাপনের যুগে এ এক স্মরণীয় মুহূর্ত।”                        

স্লেম্যানের দেহে অস্ত্রোপচার করেন ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতালের ১৫ জন চিকিৎসকের একটি দল। সেই দলের নেতৃত্বে ছিলেন ডা. তাতসু কাওয়াই।

শূকরের কিডনি প্রতিস্থাপনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে তিনি জানান, শূকরের কিডনির আকার ঠিক মানুষের কিডনির মতোই। এটি যখন স্লেম্যানের দেহে বসিয়ে সেলাই করা হয় এবং তার রক্তনালীর সঙ্গে যুক্ত করা হয়, সঙ্গে সঙ্গে ‍কিডনিটির রঙ গোলাপী হতে থাকে এবং মূত্র তৈরি করতে শুরু করে।

শূকরের কিডনিটি স্লেম্যানের দেহে কাজ করছে দেখে অস্ত্রোপচার কক্ষে থাকা সবাই খুশিতে হাততালি দিয়ে ওঠেন বলেও জানান ডা. কাওয়াই ।

অস্ত্রোপচারের পর সংবাদ সম্মেলনে ডা. কাওয়াই বলেছেন, “এত সুন্দর কিডনি সত্যিকার অর্থে আমি আগে কখনও দেখিনি।”

স্লেম্যানের দেহে সফলভাবে কিডনি প্রতিস্থাপন করতে পেরে ১৫ সদস্যের চিকিৎসক দলের সবাই আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন। তাদের কয়েকজন ক্যারিয়ারের শুরু থেকে এখন পর্যন্ত পশু থেকে মানুষের দেহে কিডনি প্রতিস্থাপনের ওপর গবেষণা করে যাচ্ছেন।

আরও পড়ুন

সর্বশেষ

ad

সর্বাধিক পঠিত